October 19, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

গোবিন্দগঞ্জে করতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে

গোবিন্দগঞ্জে করতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে

গোবিন্দগঞ্জে করতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে

গাইবান্ধাঃগাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে করতোয়া নদী থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নদীর ভূগর্ভ থেকে বালু উত্তোলণের মহোৎসব চলছে। ক্ষমতাসীন দলের কতিপয় অসাধু নেতার ছত্রছায়ায় করতোয়া নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে এ বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে। ফলে একদিকে বালু উত্তোলনে ভাঙ্গনে বাঁধসহ বিভিন্ন স্থাপনা, ফসলী জমি, ঘর-বাড়ি হুমকীর সম্মুখীন অপরদিকে বালু বিক্রি করে কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ বনে যাচ্ছেন।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কাটাবাড়ী ইউনিয়নের ফুলাহার থেকে মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের দেওয়ানতলা ব্রীজ পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার করতোয়া নদীর প্রায় অর্ধশত স্থানে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নদীর ভূগর্ভ থেকে অবাধে বালু ্উত্তোলন করা হচ্ছে। স্থানীয় ভূমিদস্যুরা দীর্ঘদিন থেকে অবৈধভাবে নদীর ভূগর্ভ থেকে বালু উত্তোলন করে আসছে। বালুদস্যুরা এসব বালূ উত্তোলন করে নদীর পাড়ে ঢিবি করে মজুত করে বিক্রি করে আসছে। ভূমিদস্যুরা জানান, প্রশাসন, নেতা, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন মহল আাটঘাট বেঁধেই তারা নদী থেকে বালু উত্তোলন করে আসছে। মাঝে মধ্যে প্রশাসনের অভিযানে বালু উত্তোলন ২/১ দিন বন্ধ থাকলেও পরে বিশেষ মহলের ইঙ্গিতে আবারও শুরু করা বালু উত্তোলন।

গোবিন্দগঞ্জ নাগরিক কমিটির আহবায়ক এমএ মোতিন মোল্লা জানান, উপজেলা প্রশাসন ও ক্ষমতাসীনদলের কিছু নেতার সহযোগিতায় নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করে বিক্রির মাধ্যমে কিছু ব্যক্তি লাখপতি হয়ে যাচ্ছেন। অথচ বালু উত্তোলনের ফলে ভাঙ্গনে করতোয়া বাঁধসহ, বিভিন্ন স্থাপনা, ফসলী জমি, ঘর-বাড়ি হুমকীর সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। ভূগর্ভ থেকে বালু তোলা বন্ধে আন্দোলন করেও প্রতিকার না হওয়ায় এ নিয়ে উচ্চ আদালতে যাওয়ার কথা ভাবছি। তবে গোবিন্দগঞ্জ ইউএনও রামকৃষ্ণ বর্মন প্রশাসনের সহায়তা অস্বীকার করে জানান, অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, বিপনন ও পরিবহন বন্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত ২১ ডিসেম্বর করতোয়া নদীর পৃথক তিনটি পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে ৫টি ড্রেজার মেশিন জব্দসহ ৩জনকে আটক করে দেড়লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।