October 20, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

পীরগঞ্জে বৌমা শ্বশুরের পরকিয়ায় বাঁধা লাশ হলো শ্বাশুড়ী:শ্বশুর গ্রেফতার

পীরগঞ্জে বৌমা শ্বশুরের পরকিয়ায় বাঁধা লাশ হলো শ্বাশুড়ী:শ্বশুর গ্রেফতার

পীরগঞ্জে বৌমা শ্বশুরের পরকিয়ায় বাঁধা লাশ হলো শ্বাশুড়ী:শ্বশুর গ্রেফতার

পীরগঞ্জ(রংপুর) প্রতিনিধিঃ রংপুরের পীরগঞ্জে ছেলের বউয়ের সাথে পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় লাশ হলো শ্বাশুড়ী পোশাগী বেগম (৫৫)। গত রবিবার রাতে উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরাবাদ উত্তরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় পীরগঞ্জ থানা পুলিশ শ্বশুড় কফিল উদ্দিনকে গ্রেফতার করে গত সোমবার রংপুর জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। মামলা ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার জাহাঙ্গীরাবাদ উত্তরপাড়া গ্রামের কফিল উদ্দিন শেষের সাথে প্রায় ৪০ বছর আগে পার্শ্ববর্তী পানেয়া গ্রামের পোশাগী বেগমের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ২ ছেলে-মেয়ের জন্ম হয়। শ্বশুড় কফিলের ছেলে বহুরুল ইসলাম (৩৫) তার স্ত্রী মনিরা বেগমকে বাড়ীতে রেখে প্রায় ১০ বছর ধরে ঢাকায় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে। মাঝে মধ্যে বাড়ীতে আসা-যাওয়া করে। ছেলে দীর্ঘদিন ধরে অনুপস্থিত থাকার সুযোগে শ্বশুড় কফিল উদ্দিন তার পুত্রবধু মনিরার সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে গ্রামে একাধিকবার শালিসে কফিল ঘটনার সত্যতা স্বীকারও করে। এ ব্যাপারে ছেলে বহুরুলকে তার মা পোশাগী বেগমসহ প্রতিবেশিরা এ ঘটনা অবগত করলেও সে তার বাবার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। এক পর্যায়ে গত ২৭ মে গভীর রাতে কফিল তার পুত্রবধুর সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। এসময় শ্বাশুড়ী পোশাগী বেগম তাদের দু’জনকে হাতে নাতে ধরে ফেলে। এতে বাঁধা দেয়ায় কফিল তার স্ত্রী পোশাগীকে এলোপাতাড়ী মারপিট করলে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। এদিকে বাড়ীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত রবিবার রাতে পোশাগী বেগম মারা যায়। এ ঘটনায় পোশাগীর বড় ভাই মীর মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে তার ভগ্নীপতি কফিল, ভাগনে বউ মনিরা, ভাগনে বহুরুলকে আসামী করে পীরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ৪৯, তাং- ৩১/০৫/২১ইং। এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সরেস চন্দ্র জানান, মামলার প্রধান আসামী শ্বশুড় কফিল উদ্দীনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশিং অভিযান তৎপরতা চলছে।