November 27, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

বীরগঞ্জে পুকুরের বাধ নির্মানের ফলে ১০০ হেক্টর জমির ধান পানির নীচে

বীরগঞ্জে পুকুরের বাধ নির্মানের ফলে ১০০ হেক্টর জমির ধান পানির নীচে


খায়রুন নাহার বহ্নি,বীরগঞ্জ(দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের রাজিবপুর, খামার মধুবনপুর, ভোগডোমা মৌজার পূর্ব পার্শ্বে পীকপাড়া মৌজার সীমানা সংলগ্ন স্থানে, জনাব মোঃআব্দুর খালেক শাহ্ পিতা মরহুম তাহের উদ্দিন শাহ্, মাছ চাষ করার উদ্যেশে পুকুর খনন করেন। পুকুরের মাছ রক্ষার্থে পুকুরের পশ্চিম পাশ দিয়ে একটি বাঁধ নির্মাণ করেন।

উক্ত বাঁধ দেওয়ার কারনে রাজিবপুর, রঘুণাথপুর এবং ভোগডোমা মৌজার ১০০ হেক্টর আমন ফসলের জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। চলতি বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টিপাত কম হওয়াতে জমিতে ধানের চারা রোপন করা হয় কিন্তু গত ০৩/১০/২০২১, ০৪/১০/২০২১, ১৯/১০/২০২১ এবং ২০/১০/২০২১ইংতারিখে ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ায় ধানের জমিতে গড়ে ৩/৪ ফিট পানি জমে আছে।পানি নিষ্কাসনের কোন ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে আমন ফসলে ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়েছে এবং কিছু ধান পানির নীচে ডুবে আছে । আসন্ন রবি মৌসুমে জলাবদ্ধতার কারনে কিছু জমিতে ভূট্টা, আলু, গম, সরিষা,শাক-সবজী লাগানো সম্ভবপর নয়।
উল্লেখ্য বিষয় যে, আগামী বর্ষা কালে বৃষ্টিপাত বেশিহলে, আমন ধান রোপনকরা সম্ভব হবে নাএবংকিছু বাড়িতে পানিজমে থাকবে যার ফলে অত্র এলাকার প্রান্তিক কৃষকদের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। বীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার জনাব আবু রেজা মোঃ আসাদুজ্জামানে সাথে কথা বললে তিনি জানান যে কৃষকের যাতে কোন ক্ষতি না হয় সেদিকে খেয়াল রেখে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।
এমতাবস্থায় ফসলি জমির জলাবদ্ধতা দুরীকরণের লক্ষ্যে জনাব মোঃ আব্দুর খালেকের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলের পুকুরের উত্তর সীমানা বরাবর রাস্তা সংলগ্ন অথবা পুকুর সংলগ্ন দক্ষিণ পার্শ্বে পানি নিষ্কাশনের জন্য পাকা নালা নির্মাণ করা হয় তাহলে ফসলি জমির জলাবদ্ধতা দুর করে উক্ত জমিতে চাষাবাদ করা সম্ভব।