December 9, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

পীরগঞ্জের কৃতি সন্তান ড. রাজু পেলেন জাপানের “বেষ্ট পেপার অ্যাওয়ার্ড’’ ২০২১

পীরগঞ্জের কৃতি সন্তান ড. রাজু পেলেন জাপানের “বেষ্ট পেপার অ্যাওয়ার্ড’’ ২০২১

পীরগঞ্জের কৃতি সন্তান ড. রাজু পেলেন জাপানের “বেষ্ট পেপার অ্যাওয়ার্ড’’

পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধিঃ পীরগঞ্জ উপজেলার ১৫ নং কাবিলপুর ইউনিয়নের নিজকাবিলপুর গ্রামের মোঃ আব্দুল হানিফ ও মাতা মোছাঃ আনোয়ারা বেগম দম্পতির ৩ সন্তানের মধ্যে ২য় পীরগঞ্জের কৃতি সন্তান ড. মোঃ হাসানুর রহমান রাজু। ১৯৮৮ সালে প্রত্যন্ত গ্রামে জন্ম নেওয়া ড. রাজু আজ দেশের গন্ডি পেরিয়ে জাপানের “বেষ্ট পেপার এ্যাওয়ার্ড-২০২১” পেয়ে আলোকিত করেছে পীরগঞ্জসহ দেশবাসীকে।
টুকনিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গন্ডি ১৯৯৬ সালে পেরিয়ে পার্শ্ববর্তী থানা পলাশবাড়ী ফাযিল মাদ্রাসা থেকে মাধ্যমিক ২০০২ সালে এবং পলাশবাড়ী সরকারী কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ন হন ২০০৪ সালে। উচ্চতর শিক্ষার জন্য দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হতে কৃতিত্বের সাথে সম্মানসহ মাস্টাার্স ডিগ্রী ২০১১ সালে সম্পন্ন করে। মেধাবী ড. রাজু হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১২ সালে শিক্ষকতা দিয়ে কর্ম জীবন শুরু করেন।


প্ল্যান্ট সাইন্সের অগ্রগতিতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ জাপানের “বেষ্ট পেপার এ্যা অ্যাওয়ার্ড -২০২১” পেয়েছেন (হাবিপ্রবি) শিক্ষক ড. মোঃ হাসানুর রহমান রাজু।
প্ল্যান্ট ও সেল ফিজিওলজি জার্নালে ২০১৯ সালে প্রকাশিত গবেষণা পত্রটির জন্য জাপানের বৃহত্তর উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের সংগঠন “দি জাপানিজ সোসাইটি অব প্ল্যান্ট ফিজিওলজিস্ট” তাকে এই অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করে। উক্ত গবেষণা পত্রের মুল বিষয়বস্তু ছিলো – জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং প্রযুক্তি ব্যাবহার করে উদ্ভিদের ভ্রুণ উৎপাদনে প্যারেন্টাল জিনের অবদান আবিস্কার।
এদিকে, দি জাপানিজ সোসাইটি অব প্ল্যান্ট ফিজিওলজিস্ট তাদের অফিসিয়াল পেজ থেকে জানায় এই অ্যাওয়ার্ড পাওয়ার সম্মানি হিসাবে একটি সনদপত্র ও দুই লক্ষ জাপানিজ ইয়েন প্রদান করবে। জাপান প্রতিবছর প্ল্যান্ট সেল ও ফিজিওলজির বেষ্ট গবেষণা পত্রকে তারা এই সম্মননা প্রদান করে আসছে।
ড. রাজু বর্তমানে হাবিপ্রবির উদ্যানতত্ত্ব বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হিসাবে কর্মরত আছেন। তিনি জাপানের টোকিও মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৯ সালে সফলভাবে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।
বেষ্ট পেপার অ্যাওয়ার্ড মনোনীত হওয়ার পর ড. রাজুর অনুভূতি জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ” আমি আনন্দিত যে এটা আমাকে ভালো গবেষণা করতে আনুপ্রানিত করবে। ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি অ্যাওয়ার্ড প্রদান কমিটিকে। তিনি আরও জানান, ” বর্তমানে নিরাপদ ও টেকসই খাদ্য উৎপাদন নিয়ে কাজ করছনে। এছাড়াও আইভিএফ পদ্ধতিতে জিন সনাক্ত ও কার্যকারিতা বিশ্লেষণের মাধ্যমে ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি এবং বন্যা/ খরা সহিষ্ণু জাত উদ্ভাবন বিষয়ে গবেষণা করার ইচ্ছা পোষন করেন তরুন (হাবিপ্রবি) শিক্ষক ড. মোঃ হাসানুর রহমান রাজু ” ।