November 27, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

অশ্রুসিক্ত ভালোবাসায় বিদায় নিলেন মানবিক ও জনবান্ধব ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম

অশ্রুসিক্ত ভালোবাসায় বিদায় নিলেন মানবিক ও জনবান্ধব ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম

অশ্রুসিক্ত ভালোবাসায় বিদায় নিলেন মানবিক ও জনবান্ধব ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম


এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ অশ্রুসিক্ত ভালোবাসায় বিদায় নিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি প্রাপ্ত দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার মানবিক, জনবান্ধব ও সৃজনশীল ইউএনও কৃষিবিদ আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম।

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অফিসার্স ক্লাবের আয়োজনে ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলামকে বিদায়ী সংবর্ধনা ও নবাগত ইউএনও রাশিদা আক্তারকে বরণ শেষে দায়িত্ব হস্তান্তর হয়।

বৃহস্পতিবার (০৪ নভেম্বর) সকালে উপজেলা পরিষদ ত্যাগ কালে ইউএনও মাহবুবকে বিদায় জানাতে এসে বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য, কর্মচারী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ আবেগাপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

জানা যায়, সদ্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসাবে পদোন্নতি পাওয়া ৩ নভেম্বর ২০২১ এই উপজেলায় তার দায়িত্বকাল ৩ বছর ৯ মাস পূর্ণ হয়েছে। তিনি গত ২০১৮ সালের ৪ ফেব্রুয়ারী খানসামা উপজেলার ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব নেন।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে কর্তব্য অবহেলা, হয়রানি ও ঘুষ-দুর্নীতিসহ অভিযোগের শেষ নেই জনগণের। তবে এর ব্যতিক্রম মানবিক ও দায়িত্বশীল কর্মকর্তাও রয়েছে। যারা লোভ লালসার উর্ধ্বে উঠে নিজ প্রতিষ্ঠানকে গড়ে তোলেন জনবান্ধব, ইতিবাচক ও বিপদগ্রস্ত মানুষের আশ্রয়স্থল।

এদের মধ্যে দিনাজপুর খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম নেহাতেই কম ছিলো না। তিনি গত ২০১৮-২০১৯ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হয়েও ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন । 

তাঁর সৃজনশীল কর্মদক্ষতা ও ইতিবাচক চিন্তায় পরিবর্তন এসেছে উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও সার্বিক চিত্র। তরুন এই কর্মকর্তা দক্ষ প্রশাসক ও মানবিকতায় উপজেলার সব শ্রেণি-পেশার মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন ইউএনও মাহবুব।

অনেকের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে সরকারী খাস জমি উদ্ধার করে নির্মাণ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার সরকারী পাকা ঘর।

খানসামা উপজেলা পরিষদ চত্বরে নান্দনিক শিশু পার্ক, আধুনিক গেট, নয়নাভিরাম কমপ্লেক্স হলরুম, সভা কক্ষ, ছাদ বাগান, পরিত্যক্ত জমিতে বাগান, অভ্যন্তরীণ সড়ক নির্মাণ, বিভিন্ন অবকাঠামো ও রাস্তার উন্নয়নের ফলে উনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

তাঁর মানবিকতা ও আন্তরিকতায় খানসামা উপজেলার মানুষ মুগ্ধ ও আবেগাপ্লুত।
জনবান্ধব এই ইউএনও’র সার্বিক কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ ও প্রশংসা করেছেন কর্মকর্তাগণ,  জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, গণমাধ্যমকর্মী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

বিদায় বেলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম বলেন, প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মচারী হিসেবে যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি আমার উপর সরকারের অর্পিত দায়িত্ব স্থানীয় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও সমাজের বিশিষ্টজন সবার সাথে সমন্বয় করে সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনা করেছি। সকল কাজে খানসামা উপজেলাবাসীর সহযোগিতা ও সমর্থন ছিল আমার মূল প্রেরণা। রাষ্ট্র ও জনগনের কাজ পরিচালনা করতে গিয়ে আমার অগোচরে কেউ যদি কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। তিনি আবেগ-আপ্লুত কন্ঠে আরো বলেন, খানসামা উপজেলার কথা আজীবন মনে থাকবে, এখানাকার মানুষের ব্যবহারে সত্যিই মুগ্ধ । খানসামা উপজেলাবাসীর জন্য শুভ কামনা রইল।