April 18, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

করোনা টিকা নিলেন তুরাগ থানার ওসি (তদন্ত) সফিউল্লাহ

করোনা টিকা নিলেন তুরাগ থানার ওসি (তদন্ত) সফিউল্লাহ

করোনা টিকা নিলেন তুরাগ থানার ওসি (তদন্ত) সফিউল্লাহ

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়েছেন মানবিক পুলিশ কর্মকর্তা ও প্রথম সারির একজন করোনা যোদ্ধা, ডি এম পির তুরাগ থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ সফিউল্লাহ । বৃহস্পতিবার (১১ফেব্রুয়ারি ) সকাল ১১টায় ঢাকার আজিমপুর মা ও শিশু হাসপাতাল কেন্দ্রে টিকা নেন তিনি । করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ সফিউল্লাহ বলেন, ভ্যাকসিন নিয়ে দেশের মানুষের মধ্যে যে আতঙ্ক ছিল তা কেটে গেছে । এখন দলে দলে মানুষ ভ্যাকসিন নিচ্ছে । এ ভ্যাকসিন নিরাপদ। যারা এটি নিয়ে গুজব ছড়াতে চায় তাদের কথায় কান না দিয়ে আমি বলবো সবাই ভ্যাকসিন গ্রহণ করুন । ভ্যাকসিন নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমি ভ্যাকসিন নেয়ার সময় টেরও পাইনি । এখন পর্যন্ত আমি ভালো আছি । কোনো ভয় নেই । আমার কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি । এই টিকা আমাকে যেমন সুরক্ষিত করবে, তেমনি এই দেশকে করোনা থেকে সুরক্ষিত করবে । এর আগে গত ২৭ জানুয়ারি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পরীক্ষামূলক টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃস্পতিবার দেশব্যাপী করোনা টিকা দেওয়ার পঞ্চম দিন চলছে । গতকাল বুধবার সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সারাদেশে এক লাখ ৫৮ হাজার ৪৫১ জন করোনা টিকা নিয়েছে । ডি এম পির তুরাগ থানায় কর্মরত মানবিক এই পুলিশ কর্মকর্তা দেশে করোনা ভাইরাস আঘাত হানার পর থেকেই তিনি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং পুলিশ বাহিনীসহ বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হন । তিনি বাংলাদেশ পুলিশ প্রধানের নির্দেশে এবং ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দিক নির্দেশনায় তুরাগ বাসিকে করোনার কবল থেকে বাঁচাতে সচেতন করার পাশাপাশি দুঃস্থদের মাঝে তার সাধ্যমত বিভিন্ন রকম সাহায্য সহযোগিতাও করেছেন । তার নিজের নামে উত্তোলনকৃত রেশনের মালামালও দুঃস্থদের মাঝে বিলিয়ে দিয়েছেন । এক পর্যায় করোনা যোদ্ধা মোহাম্মদ সফিউল্লাহ নিজেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন । আর এই সংবাদ বিভিন্ন গনমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তুরাগের অগণিত মানুষ মহান আল্লাহ্র দরবারে এই সাহসী পুলিশ অফিসারের জন্য দোয়া করেন । বেশ কিছুদিন কোভিড-১৯ এর সাথে যুদ্ধ করে আল্লাহ্র অশেষ রহমতে ও সকলের দোয়ায় স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসেন তিনি । তারপর নিজ কর্মস্থলে যোগদান করে সকলের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, আল্লাহ্র অশেষ রহমতে নিজের মনোবল, সকলের দোয়া এবং ভালোবাসায় আমি পুনরায় আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছি । আমি আক্রান্ত হওয়ার পর সবসময় একমাত্র আল্লাহ্র উপর ভরসা রেখেছি, নামাজ আদায় করেছি এবং সব সময় নফল ইবাদতের মধ্যে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি । তাই আমি মনে করি এক মাত্র আল্লাহ্ই পারেন আমাদের সকল প্রকার বালা মসিবত থেকে রক্ষা করতে । ভ্যাকসিন গ্রহনের পর তিনি আরও বলেন, সকলেই সাবধানতা অবলম্বন করে চলবেন । নিজে সুস্থ থাকুন, নিজের পরিবার ও সকলকে সুস্থ রাখুন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নির্ভয়ে ভ্যাকসিন নিন । আর আমি যেন মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নিজের নীতি আদর্শ বজায় রেখে দেশ ও মানব সেবা করে যেতে পারি এই জন্য সকলের দোয়া চাই ।