May 14, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

কোটচাঁদপুরে স্ত্রীর ক্ষেতে আগুন দিলো স্বামী!

কোটচাঁদপুরে স্ত্রীর ক্ষেতে আগুন দিলো স্বামী!

কোটচাঁদপুরে স্ত্রীর ক্ষেতে আগুন দিলো স্বামী!

ঝিনাইদহ-
ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর পল্লীর দোড়া গ্রামের ভুক্তভোগী সুফিয়া বেগম বলেন, আমার বিয়ে হয়েছে ১৫/১৬ বছর আগে উপজেলার পার্শ্ববর্তী কুশনা ইউনিয়নের মামুনশিয়া গ্রামে। স্বামী জাহাঙ্গীর আলম একজন মাদক সেবী। আমাদের ঘরে (এক মেয়ে দুই ছেলে) তিনটি শিশু সন্তান রয়েছে। স্বামী জাহাঙ্গীর ঠিক মত আমাদেরকে খেতে পরতে দিত না। যে কারণে আমাকে পরের দুয়ারে কাজ করতে হতো। তার মধ্যেও আমাকে প্রায়ই মারধোর করতো। এর মধ্যে আট বছর স্বামী জাহাঙ্গীর বাড়ী ছেড়ে চলে যায। তার কোন খোঁজ খবর ছিলো না। তার পরও স্বামীর ভিটে আঁকড়ে ধরে ছিলাম। হঠাৎ তিন মাস আগে সে বাড়ীতে ফিরে আসে। তারপর থেকে আমার উপর নির্যাতনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। বাধ্য হয়ে আমি বাপের বাড়িতে চলে আসি। কয়েক দিন আগে সে আমাকে নিতে আসে। আমি আর সেখানে ফিরে যাবনা জানিয়ে দিই। তখন সে আমাকে দেখে নেয়াসহ লাগানো ধান কি করে ঘরে তুলি তা দেখবে বলে হুমকী দিয়ে চলে যায়। বুধবার দিনগত রাতে সে ওই ধানের গাদায় আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। সুফিয়া বেগম দাবী করেন, রাতে আঁধারে আগুন ধরাতে আমি না দেখলেও আমি নিশ্চিত আমার স্বামীই এই অপকর্মটি করেছে। এ ব্যপারে তিনি থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে জানান। ওই এলাকার মেম্বার আশরাফ আলী বলেন- মেয়েটি খুব কষ্ট করে ধান করেছিলো। এই খাঁ খাঁ রোদে শিশু সন্তানদের সাথে নিয়ে কাটা ধান শুকিয়ে পাশা পাশি দুই জায়গায় গাদা দিয়ে রেখেছিল সে। এই কষ্টের ফসল পুড়িয়ে দেয়ার কঠোর শাস্তি হয়া উচিত। বিষয়টি নিয়ে কোটচাঁদপুর থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) মঈন উদ্দীন বলেন, অভিযোগটি পেয়েছি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয় হবে। এধরণের অপকর্মের কোন ছাড় নেই।