January 28, 2022

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

ঠান্ডায় কাবু ঠাকুরগাঁও

ঠান্ডায় কাবু ঠাকুরগাঁও

ঠান্ডায় কাবু ঠাকুরগাঁও


জসিম উদ্দিন ইতি ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

দেশের উত্তরের সীমান্ত সর্বশেষ জেলা ঠাকুরগাঁওয়ে জেঁকে বসেছে শীত । হিমালয়ের অনেক কাছে হওয়ায় এখানে এখন অসহনীয় শীত। এতে ছিন্নমূল মানুষেরাই বেশি দুর্ভোগে।

আবহাওয়া অফিসের সূত্র মতে, ঠাকুরগাঁও জেলায় গতকাল (সোমবার) সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এ ছাড়া আজ সকাল থেকে সূর্যের দেখা পাওয়া যায়নি

হঠাৎ জেঁকে বসা শীতে চরম বিপাকে পড়েছে সাধারণ মানুষ । শীতবস্ত্রের অভাবে শীতের প্রকোপ থেকে মুক্তি পেতে অনেকে কুড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা চালাচ্ছে।

ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় জেঁকে বসেছে শীত। দুপরের পর কুয়াশার চাদর ভেদ করে সূর্য উদিত হলেও কমছেনা শীতের প্রকোপ।রোববার সন্ধ্যা থেকে জেঁকে বসে কন কনে শীত। কনকনে শীতে কাঁপছে উত্তরের জনপদ। জেঁকে সবা কনকনে শীতে সবচেয়ে বেশী দূর্ভোগে পড়েছে শিশু ও বয়স্করা।ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ভেলাজান গ্রামের দিন মজুর আব্দুর রশীদ বলেন সকালে এত ঠান্ডায় কাজে যেতে খুব কষ্ট হচ্ছে।কি করে যে এই শিতের দিনগুলো কাটব।

ঠান্ডাজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বয়স্করা । হাসপাতালে বেড়ে চলেছে শিশু ও বয়স্ক রোগী সংখ্যা। হঠাৎ শীতে শ্রমজীবি মানষের বেড়েছে চরম দূর্দশা। ঠান্ডার কারণে ঘরের বাইরে বের হতে পারছেন না তারা । হতদরিদ্র-ছিন্নমূল মানুষ শীতবস্ত্রের অভাবে অনেকেই খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা চালাচ্ছেন।

এ জেলায় কখনো কখনো সারাদিনই ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন থাকছে। গত দুইদিন দিন ধরে এখানে দিনের বেলায় কিছু সময় সূর্য দেখা গেলেও বাতাস বয়ে বেড়াচ্ছে তীব্র শীত। অন্যদিকে রাতের বেলায় বৃষ্টির ন্যায় ঝিরঝির করে কুয়াশা ঝরছে।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, শীতার্তদের সহায়তায় সরকারি ভাবে ইতোমধ্যে ২৬ হাজার ৩ শত কম্বল পেয়েছে জেলা প্রশাসন। এছাড়াও ৮ লাখ টাকা এসেছে চাহিদা অনুযায়ী শীতবস্ত্র ও কম্বল কেনার জন্যে।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক মাহাবুবুর রহমান বলেন, এবার জেলায় শীতের প্রকোপটা একটু বেশি। সরকারিভাবে এখন পর্যন্ত পাওয়া বরাদ্দ যথেষ্ট নয়। তাই জেলার শীতার্ত মানুষের শীত নিবারণের জন্য আরও ২৫ লাখ টাকা ও ১ লাখ কম্বল অতিরিক্ত চেয়ে পাঠানো হয়েছে। চাহিদা অনুযায়ি বরাদ্দ পাওয়া গেলে হয়তো শীতার্থদের কিছুটা সহায়তা করা সম্ভব হবে।  এসময় তিনি বিত্তবানদের শীতার্তদের পাশে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

শীতের প্রকোপ থেকে রেহাই পেতে হতদরিদ্র-ছিন্নমূল মানুষ এই মূহুর্তে প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্রের দাবী তুলেছে।

জসিম উদ্দিন ইতি