December 1, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

নব গঠিত পীরগঞ্জ পৌরসভায় প্রায় ৪৫ কোটি টাকার অবকাঠামোগত উন্নয়ন

নব গঠিত পীরগঞ্জ পৌরসভায় প্রায় ৪৫ কোটি টাকার অবকাঠামোগত উন্নয়ন

নব গঠিত পীরগঞ্জ পৌরসভায় প্রায় ৪৫ কোটি টাকার অবকাঠামোগত উন্নয়ন

পীরগঞ্জ(রংপুর) প্রতিনিধিঃ
২০১৬ সালে নবগঠিত পীররগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে পীরগঞ্জ পৌরসভার প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক প্রধানমন্ত্রীর ভাসুরপুত্র এ.এস.এম তাজিমুল ইসলাম শামীম। মেয়র পদের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন ৩১ আগষ্ট ২০১৬ সালে। প্রথম মেয়াদেই পীরগঞ্জ পৌরসভা “গ” শ্রেনী থেকে “খ” শ্রেনীতে উন্নত হয়। সারাদেশে ১০টি পৌরসভা ডিজিটালের মধ্যে পীরগঞ্জ পৌরসভা একটি।
যেসব রাস্তা খানা-খন্দে ভরা ছিল, সেসব রাস্তা কংক্রিটে নির্মিত হয়েছে। শহরের জলাবদ্ধতা দূর করতে নির্মাণ করা হচ্ছে আরসিসি ড্রেন। এছাড়া সড়কবাতি, সুপেয় পানি সরবরাহে নতুন পাইপ লাইন স্থাপন এবং পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা প্রকল্পের ব্যাপক উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন ও চলমান রয়েছে।
উন্নয়ন পরিকল্পনা অনুযায়ী পাঁচ বছরে পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। আর এসব উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন হওয়ায় পৌর নাগরিকদের সেবার মান বাড়াতে পেরেছি। পৌরসভার বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন, স্থায়ী কংক্রিটের সড়ক ও ড্রেন নির্মাণ, সড়কবাতি স্থাপন, পৌরবাসীর সুপেয় পানি সরবরাহে নতুন পাইপ লাইন স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়া পৌর এলাকার মসজিদ-মাদ্রাসার সংস্কার ও উন্নয়নসহ পৌর এলাকার বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্থাপন করা হয়েছে কমিউনিট ও পাবলিক টয়লেট। করোনা প্রতিরোধেও প্রতিটি ওয়ার্ডে জনসচেতনমূলক কাজ পরিচালনা এবং মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ করোনা প্রতিরোধের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। করোনাকালীন কর্মহীন ও দুস্থ পরিবারগুলোকে মানববিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে।’

পৌর মেয়র জানান, বিগত ৫ বছরে ৩ কোটি ৪৯ লাখ ৭৯ হাজার ৫শত টাকা ব্যয়ে ৯টি ঈদগাঁ বাউন্ডারী, ৬.১৩৩ কি:মি: মাটি ভরাট, ২শতাধিক ষ্ট্রীট লাইট, প্যালাসাইডিং,নলকুপ, বৃক্ষরোপন, স্লইজ গেটে বসার স্থান, আবাসন ব্যবস্থা,ডিজিটাল হাজিরা মেশিন, সেলাই মেশিন বিতরণ, শেড নির্মান, পৌর গোরস্থানের রাস্তা নির্মাণ, শিশুদের জন্য দোলনা ক্রয়, পৌর এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় সমুহে শিশুদের স্কুল ব্যাগ বিতরণ,গাইড ওয়াল,মসজিদ সংস্কার,কৃষি উপকরণ বিতরণ ও শহর আলোকিতকরণ কাজ করা হয়েছে।
পৌর উন্নয়ন অবকাঠামো প্রকল্পের আওতায় প্রায় ২৪ কোটি ৮৯ লাখ ৩৩ হাজার ৭৬০ টাকা ব্যয়ে ৩৬.৭৫ কিঃমিঃ রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। যার মধ্যে আরসিসি ২৮.৩ কিলোমিটার, বিসি ৫.৮৪ কিলোমিটার, এইচবিবি ২.৩১৫ কিলোমিটার এবং সিসি.৩০৩ কিলোমিটার।
জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতায় গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে আওতায় পৌনে ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯.৫ কিলোমিটার আরসিসি ড্রেন নির্মান, সলিড ওয়েষ্ট ল্যান্ডফিল্ড নির্মান, ১০টি কমিউনিট টয়লেট, ৪টি পাবলিক টয়লেট, ৩টি গভীর নলকূপ ও ৩১ কিলোমিটার পানির লাইন স্থাপনের মাধ্যমে ১হাজার বাসায় পানির সংযোগ ও সরবারহ করা হয়েছে।
মূল শহরের পাশাপাশি বর্ধিত এলাকায়ও টেকসই সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। শুধু সড়কের উন্নয়ন নয় ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা লক্ষ্যে এরই মধ্যে বেশকিছু পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। পৌর এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার কাজ শুরু করা হয়েছে। যখানে-সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলে কেউ পরিবেশ দূষিত না করতে পারে, সেজন্য পীরগঞ্জে শহরসংলগ্ন চৌরাহাটে নিদিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলার জন্য ডাম্পিং স্টেশন নির্মাণ করা হয়েছে। সেখানে ময়লা ফেলার কাজ শুরু করা হয়েছে বলে পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে।

শুধু উন্নয়নমূলক কাজই নয় বাড়ির প্লান পাস করা, ট্রেড লাইসেন্স করা, জন্মসনদ ও মৃত্যু সনদ পাওয়া থেকে শুরু করে অন্যান্য নাগরিক সুবিধা পেতে কোনো ভোগান্তি পোহাতে হয় না। দিতে হয় না বাড়তি কোনো অর্থ। পাঁচ বছরে মেয়র শামীম ৪৩ কোটি টাকারও বেশি উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন পৌরসভায়।
পীরগঞ্জ পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক তাজিমুল ইসলাম শামীম বলেন, আমার রাজনৈতিক অভিভাবক জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পিকার রংপুর-৬ পীরগঞ্জের সংসদ সদস্য ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপির নির্দেশে সততার সঙ্গে পৌরবাসীর উন্নয়নে কাজ করেছি। এজন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার পীরগঞ্জের কৃতি সন্তান সজীব ওয়াজেদ জয় ভাইয়ের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। আমি আবারো নির্বাচিত হলে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে পীরগঞ্জবাসীকে একটি মডেল পৌরসভায় রূপান্তর করার লক্ষ্যে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে কাজ করব।