October 20, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

পলাশবাড়ীতে জামাতের কর্মীর মারধরের কৃষকলীগ নেতা চিকিৎসাধীন

পলাশবাড়ীতে জামাতের কর্মীর মারধরের কৃষকলীগ নেতা চিকিৎসাধীন

পলাশবাড়ীতে জামাতের কর্মীর মারধরের কৃষকলীগ নেতা চিকিৎসাধীন

গাইবান্ধা ঃ জামাতের কর্মীর নির্মম নির্যাতনের স্বীকার হয়েছেন গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের কৃষকলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক গড়েয়া গ্রামের মমতাজ উদ্দিনের ছেলে রবিউল ইসলাম (৪২)। বর্তমানে সে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধিন অবস্থায় স্ত্রী সন্তান নিয়ে আতংঙ্কগ্রস্ত হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।
পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরুষ ওয়ার্ডের ১২ নং বেডে গিয়ে দেখা যায়, কন কনে শীতের মধ্যে আঘাত প্রাপ্ত স্থানের ব্যাথা নিয়ে সুয়ে রয়েছেন জামাতের কর্মীর নির্মম নির্যাতনের স্বীকার আহত রবিউল ইসলাম পাশে ছোট শিশু কন্যাকে নিয়ে পাশে বসে আছেন স্ত্রী।
তাদের নিকট জানা যায়,আওয়ামী পরিবারের সদস্য হিসাবে বিগত সময়ে গত ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে ভোট সেন্টারে গিয়ে ভোট দেওয়ায় অপরাধে রবিউল তার স্ত্রী সন্তান কে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করা হয়। স্থানীয় প্রতিবেশীদের হস্তক্ষেপে সে বার জীবন বাচিয়ে পালিয়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে ঢাকায় পাড়ি জমায় তারা। এরপর দীর্ঘ কয়েক বছর তারা ঢাকায় বসবাস করে আবারো নিজ গ্রামে ফিরে এসে স্থানীয় সিঁথি বিক্সস নামক ইটভাটায় শ্রমিক হিসাবে কর্ম কাজ করে স্ত্রী তিন কন্যাসন্তান কে নিয়ে জীবন যাপন করে আসা কালে গত ১৮ ডিসেম্বর শুক্রবার সকালে সিথী ইটভাটা হতে কাজ করে সকাল বেলা নাস্তা করার জন্য গড়েয়াস্থ আতোয়ারের হোটেলে নাস্তা করতে গেলে আগে হতে উৎপেতে থাকা গড়েয়া গ্রামের জয়নালের ছেলে জামাতের কর্মী রাকিব ওরফে আরিফ রবিউলের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলে বেধড়ক মারধর করে। এসময় রাকিব ওরফে আরিফ স্থানীয়দের বলে এ শালা বড় আওয়ামীলীগের নেতা সে আমাকে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দিতে চেষ্টা করেছে আজ ওকে জানে মেরে ফেলবো।
বেধরক মারপিটে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে স্থানীয়দের সহায়তায় হাসপাতালে নিয়ে আসার পর জরুরী বিভাগে চিকিৎসা প্রদান কালে আমার জ্ঞান ফেরে সেই হতে এখন পর্যন্ত আমি আমার স্ত্রী সন্তানসহ হাসপাতালেই রয়েছি।
এঘটনায় আহত রবিউল ইসলাম জানান,এ ঘটনায় তার পক্ষ হতে থানা আইনি ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে সুস্থ্য হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করবো। তিনি আরো বলেন, আমাকে অন্যায় ভাবে শুধু মাত্র দল করার কারণেই নির্মম নির্যাতনের স্বীকার হতে হয়েছে। এলোপাতারী মারপিটের স্বীকার হতে হয়েছে। এরপরেও আজ এক অনিশ্চয়তার মাঝে আতংঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ছি আমি ও আমার পরিবার। তিনি এ ঘটনাটির তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধির দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবী করেছেন।