June 18, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

পীরগঞ্জে মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

পীরগঞ্জে মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

পীরগঞ্জে মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি: কথায় আছে, “মাছের পোনা দেশের সোনা। “কিন্তু পীরগঞ্জ মৎস্য বিভাগ এই পোনা মাছকে নিয়েই এলাহী কান্ড শুরু করেছে। ইউনিয়ন প্রকল্পে ৯টি পুকুর প্রদর্শনী মাছ চাষীদের জন্য ৪০ শতাংশ পুকুরে মাছ চাষ, সার, চুনসহ বিভিন্ন উপকরণ সামগ্রী, শ্রেনী ভিত্তিক ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়। কিন্তু মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম নামে-বেনামে তার অফিসের আস্থাভাজন মাঠকর্মী সুমন, সাজ্জাদ, শাহজাহানকে দিয়ে তাদের মনগড়া মতো প্রকৃত মৎস্যজীবি ও চাষীদের নাম না দিয়েই আত্মীয় স্বজনরা ট্রেনিং গুলোতে অংশ গ্রহণ করেন। কোথায় কোন জায়গা ট্রেনিং হচ্ছে কোন মাছ চাষীরা জানেন না। অপরদিকে উপজেলা পর্যায়ে ৩টি প্রকল্প রয়েছে। এ গুলো হচ্ছে ইউনিয়ন প্রকল্প, এনএটিপি, রংপুর প্রকল্প। প্রকল্প গুলোতে কাগজ কলম ঠিক রেখে অফিসে আবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। মাছ চাষীরা অভিযোগ করে বলেন- পুকুর প্রদর্শনী মাছ চাষের জন্য ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ থাকলেও মৎস্য কর্মকর্তা মাছ চাষের জন্য উপকরণ সামগ্রী তিনি নিজেই কিনে আমাদের হাতে দেন। বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য উৎপাদন ও সংরক্ষণ সংক্রান্ত বিভিন্ন আইনের যথাযথ প্রয়োগ এবং এসব আইন সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করে তোলারও পরামর্শ দেয়ার কথা থাকলেও এর সবকিছুকে তোয়াক্কা না করে ইচ্ছেমত চালিয়ে যাচ্ছেন পীরগঞ্জের মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম। এ ব্যাপারে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, প্রদর্শনীর দায়িত্ব যাদেরকে দেওয়া হয়েছে মাঠ পর্যায়ে কর্মীরা একজন চাষীর আওতায় এ সকল ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করা হয়। বর্তমানে ৩টি প্রকল্পে কোন কাজ নেই। মাছ চাষের ক্ষেত্রে মনিটরিং এর ব্যবস্থা রয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা বরুন চন্দ্র বিশ্বাস জানান, প্রকৃত মাছ চাষীরা ট্রেনিং এ অংশ গ্রহণ করতে পারবে। তবে কোন অনিয়ম হলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবো।