April 14, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

প্রায় চার বছর ধরে খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অচল এক্সরে মেশিন

প্রায় চার বছর ধরে খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অচল এক্সরে মেশিন

প্রায় চার বছর ধরে খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অচল এক্সরে মেশিন

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: জনবল ও বরাদ্দ সংকট নিয়েও স্বাস্থ্যসেবায় জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে কয়েকবার শ্রেষ্ঠ খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ ৪বছর ধরে এক্সরে মেশিন অচল হয়ে পড়ে থাকায় প্রাইভেট ডায়াগনস্টিক সেন্টারই রোগীদের একমাত্র ভরসা হয়ে উঠেছে। দ্রুত এক্সরে কার্যক্রম চালুর দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।
জানা গেছে, খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০০৩ সালে এক্সরে বিভাগ চালু হয়। ওই সময় থেকে প্রতিদিন ইনডোরের অন্তত ৭-৮ জন রোগীর এক্স-রে করা হতো। কিন্তু গত ২০১৭ সাল থেকে এক্সরে মেশিন অচল হওয়ায় প্রায় চার বছর ধরে তা বন্ধ। ফলে বাধ্য হয়েই হাসপাতালে সেবা নিতে আগত রোগীরা রোগ নির্ণয়ে ডায়াগনস্টিকে গিয়ে অতিরিক্ত খরচ গুনছে।
টাকার অভাবে এক্স-রে করতে না পারা ছাতিয়ানগড় গ্রামের শফিকুল ইসলাম (৩০) নামে এক রোগী জানান, বাইরে এক্সরে করতে গেলে ৪-৫শ টাকা প্রয়োজন। যেটি হাসপাতালে করা গেলে অল্প টাকায় করা সম্ভব হত।
এক্সরে মেশিন অচল হওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (রেডিওগ্রাফার) হামিদুর রহমান কাজল গত কয়েক বছর শুধু অফিস যাওয়া-আসার মধ্যে থাকলেও এখন ফার্মেসীতে দায়িত্ব পালন করছেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা.মো.মিজানুর রহমান বলেন, নষ্ট এক্সরে মেশিন সংস্কার কিংবা নতুন মেশিনের চাহিদা চেয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে কয়েক দফায় চিঠি দিয়ে অবগত করেছি। কোন আশার আলো নাই। দ্রুত এক্সরে মেশিন চালু করতে সংশ্লিষ্ট সবার সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।