October 20, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

ফুলবাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চারজনের বির”দ্ধে প্রতি পক্ষের মিথ্যা মামলা দায়ের।

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।
দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে জড়িত নয় এমন চার ব্যক্তির বির”দ্ধে প্রতিপক্ষের ফুলবাড়ী থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের। ফুলবাড়ী উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের আব্দুর রশিদের পুত্র মোঃ সাজু (৪০) এর অভিযোগে যানা যায় ফুলবাড়ী উপজেলার উত্তর কৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত আকবর আলীর পুত্র মোঃ আশরাফুল আলম (২৯), পার্বতীপুর উপজেলার সালন্দা (যশাই) গ্রাম থানা পার্বতীপুর বর্তমান ঠিকানা চকশাহাবাজপুর থানা ফুলবাড়ী এর মোঃ মোশারফ হোসেন (৪০) এর নিকট উক্ত ব্যক্তি আশরাফুল আলম তার নিকট ২৮ হাজার টাকা ধার নেন। উক্ত ধারের টাকা মোশারফ হোসেন চাইতে গেলে তার সাথে থাকা পূর্ব গৌরীপাড়া গ্রামের (থানাপাড়া) উপজেলা ফুলবাড়ীর, হাফিজুর রহমান এর পুত্র মাহাবুবে হাফিজ ডেনি ও তেঁতুলিয়া গ্রামের আব্দুর রশিদের পুত্র মোঃ সাজু এবং স্টেশন পাড়ার মৃত আব্দুর ছামাদ এর পুত্র মোঃ মিজানুর রহমান (৪৫) পাওনাদার মোশারফ হোসেন তাদেরকে সেখানে ডেকে নিয়েযান। মোশারফ হোসেন আশরাফুল আলম কে টাকা ধার দিয়েছেন এই বিষয়ে তারা এই ঘটনা জানতোনা। কিন্তু মোঃ আশলাফুল আলম মোশারফ হোসেনকে ধারের টাকা না দেওয়ায় দুই পক্ষে মধ্যে এক প্রকার কথা কাটাকাটি হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আশরাফুল আলম মিজানুর রহমান, মাহাবুবে হাফিজ ডেনি (৩৫) ও মোঃ সাজু সহ চারজনের বির”দ্ধে ফুলবাড়ী থানায় আশরাফুল আলম বাদি হয়ে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর ১২ তারিখ ১৬/০২/২০২১ইং। মামলার বাদি মোঃ আশরাফুল আলম মামলায় উল্লেখ্য করেন গত ১৫/০২/২০২১ইং তারিখে দুপুর ১টায় তার বাড়িতে গিয়ে ভয়ভীতি এবং বিভিন্ন হুমকি প্রদর্শন করেন। এই সব ঘটনায় কোনো ভাবে উল্লেখ্য ব্যক্তিরা জড়িত নয়। অথচ তাদেরকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার জন্য মোঃ আশরাফুল আলম এই মামলা করেছেন। মোঃ সাজু, মাহাবুবে হাফিজ ডেনি জানান আশরাফুল আলমের সাথে মোশারফ হোসেন এর টাকা ধার দেওয়ার ব্যাপারে তাদের মধ্যে বিরোধ হয়। এই ঘটনার সঙ্গে আমরা কোনো ভাবে জড়িত নয়। মামলার বাদি আশরাফুল আলম অন্যায় ভাবে আমাদের বির”দ্ধে মারপিটের ঘটনার মামলা করেছেন। এ বিষয়ে মামলার বাদি আশরাফুল আলম এর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি মোবাইল ফোন গ্রহণ করেননি। এ ব্যাপারে তারা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার কাছে ন্যায় বিচারের দাবি জানিয়েছেন।