October 25, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

ফুলবাড়ী বিজিবি সীমান্ত নিরাপত্তা, চোরাচালান দমন ও সামাজিক কাজ করছে ॥

ফুলবাড়ী বিজিবি সীমান্ত নিরাপত্তা, চোরাচালান দমন ও সামাজিক কাজ করছে ॥

ফুলবাড়ী বিজিবি সীমান্ত নিরাপত্তা, চোরাচালান দমন ও সামাজিক কাজ করছে ॥

দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের ফুলবাড়ী ২৯ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি সীমান্ত নিরাপত্তার পাশাপাশি সামাজিক কাজও করছে। দেশে দূর্যোগ মুহুর্তে সামাজিক কাজগুলিও করছেন বিজিবি। ২০২০ সালের করোনা ভাইরাস সারাবিশ্বে ছড়িয়ে যাওয়ায় দেশে বিভিন্ন এলাকায় করোনা ভাইরাস থেকে সাধারণ মানুষকে মুক্ত করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় মার্চ থেকে আগস্ট পর্যন্ত ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র আওতায় এলাকায় জীবাণুনাশক স্প্রে এবং কাজ কর্ম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অসহায় দরিদ্র মানুষদেরকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছিলেন ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি। ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি সীমান্ত এলাকার প্রতিটি গ্রামে খাদ্য সামগ্রী করোনা ভাইরাসের সময় পৌছে দিয়েছিলেন। যাতে করে অসহায় গরিব মানুষগুলি অনাহারে না থাকে। ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবির অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শরীফউল্লাহ্ আবেদ (এসজিপি) ২৯ বিজিবির দায়িত্বভার পাওয়ার পর সীমান্ত নিরাপত্তা ও সামাজিক কাজগুলি চালিয়ে যাচ্ছেন। পাশাপাশি সীমান্তের চোরাচালান বন্ধে ব্যাপক অভিযান চালিয়ে ২০২০ সালে জুন থেকে নভেম্বর পর্যন্ত ১ কোটি ৬৬ লক্ষ ২৯ হাজার টাকার মাদক আটক করেন এবং চোরাকারবারীর সঙ্গে জড়িত ১৭৭ জন চোরাকারবারীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনেন। গত ২০২০ ইং সালের ডিসেম্বর মাসে সীমান্ত এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১০ লক্ষ ৭৩ হাজার টাকার মাদকের বড় ধরনের একটি চালান আটক করেন। ভারতীয় নাগরিক তাদের দেশের সীমান্ত এলাকায় দেওয়া কাঁটাতার কেটে অবৈধপথে বাংলাদেশে আসতে না পারে সেই দিকে বিজিবি সদস্যরা সব সময় সীমান্তে কড়া নজর রাখছেন। আবার বাংলাদেশের কোন নাগরিক বা চোরাকারবারীরা সীমান্তের তারকাটা কেঁটে ভারতে প্রবেশ করতে না পারে সেই দিকেও সজাগ দৃষ্টি রাখছেন বিজিবির সদস্যরা। সীমান্তে কোন মানুষ যাতে অকাতরে ভারতীয় সীমান্ত নিরপত্তা বাহিনীর বিএসএফ এর হাতে হত্যা না হয় সেই জন্য বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশের ব্যাটালিয়ন পর্যায়ে বৈঠক হয়। ইতিপূর্বে ভারতের মালদহ জেলায় ২ দেশের সীমান্ত নিয়ে বৈঠক হয়েছে। বর্তমান ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র দায়িত্বে নিয়োজিত বিজিবি’র সদস্যরা সীমান্ত এলাকায় কড়া নজরদারি রেখে সীমান্তে চোরাচালান, নারী, শিশু পাচার সহ সব রকম কার্যক্রম তদারক করছেন।
ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবির অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শরীফউল্লাহ আবেদ (এসজিপি) এর সাথে গতকাল শনিবার সীমান্ত বিষয়ে কথা বললে তিনি জানান, সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান বন্ধ কল্পে নাগরিক সচেতনতা গড়ে তোলা হয়েছে। পাশাপাশি সীমান্তে যারা বসবাস করছে তাদেরকে সীমান্তের জিরো পয়েন্টে না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন মসজিদের ঈমাম, স্কুল কলেজে শিক্ষকদেরকে এই সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সহযোগিতা করা হচ্ছে যাতে সীমান্তে মানুষ হত্যা শূন্যের কোটায় আসে। বর্তমান ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবির আওতায় সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোঠায় এসেছে। চোরাচালান বন্ধ হয়েছে। যারা এই অবৈধ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিল তারা অনেকে এই চোরাচালানের পেশা ছেড়ে দিয়ে অন্য কর্ম করে খাচ্ছে। বর্তমান সীমান্ত এলাকায় বিজিবি সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। তিনি আরও বলেন, সীমান্তে চোরাচালন দমনের ক্ষেত্রে চোরাকারবারীদের সাথে আমাদের কোন আপোষ নাই। মাদকে যুব সমাজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। তা রুখতে হবে।