May 14, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

ফুলবাড়ী সাব রেজিষ্টার অফিসে দাতা জমি রেজিষ্ট্রি দিলেও বিক্রেতা টাকা থেকে বঞ্চিত

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার সাব রেজিষ্টার অফিসে জমি বিক্রেতা মোঃ মতিয়ার রহমান ক্রেতাকে জমি রেজিষ্টি দিলেও বিক্রেতা টাকা থেকে বঞ্চিত। ফুলবাড়ী উপজেলার পৌরসভা এলাকার কৃষ্ণপুর গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের ফজলুর রহমানের পুত্র মোঃ মতিয়ার রহমান এর টাকার প্রয়োজন হলে তার ৩৫.৫ শতক জমি বিক্রয়ের প্রস্তাব করলে কৃষ্ণপুর গ্রামের ইব্রাহিম এর সাথে জমি বিক্রয়ের কথা হলে তারা তার ঐ জমি ক্রয় করার প্রস্তাব দেন। সমস্ত দায় দায়িত্ব নিয়ে জমির নির্ধারীত মূল্য ৭,১০,০০০/- (সাত লক্ষ দশ হাজার) টাকা। এরি মধ্যে ইব্রাহিমের পুত্র মোঃ সাইফুল ইসলাম (২৫) ও মোঃ হাবিবুর রহমান (২৮) সহ অন্য এক পুত্র মিলে তিনজন উক্ত জমি গত ২৮/০৮/২০২০ইং তারিখে ফুলবাড়ী সাব রেজিষ্টার অফিসে মূল জমির মালিক মতিয়ার রহমান (৬৫) এর নিকট থেকে তারা দলিল মূলে রেজিষ্ট্রি করে নেন। এর মধ্যে তাকে ২,২০,০০০/- (দুই লক্ষ বিশ হাজার) টাকা প্রদান করেন অবশিষ্ট টাকা জমি রেজিষ্ট্রির পর জমি ক্রেতা মোঃ ইব্রাহিম দেওয়ার অঙ্গিকার করেন। জমি রেজিষ্ট্রির ৪ মাস গত হয়ে গেলেও জমির মালিক মোঃ মতিয়ার রহমানকে অবশিষ্ট টাকা না দিয়ে তাকে হয়রানী করেন। যাহার জমি রেজিষ্ট্রির রেজিষ্টারের তারিখ ২৬/০৮/২০২০ইং ক্রমিক নং- ৩১৬৪ দলিল নং ৩১১২ বহি নম্বর ৩২ রশিদ নং ৩১৬৪। টাকা ক্রেতার নিকট না পেয়ে জমির মালিক মোঃ মতিয়ার রহমান ফুলবাড়ী থানায় গত ৪মাস আগে লিখিত ভাবে অভিযোগ করেন অভিযোগ দেওয়ার পর অভিযোগটি থানা গ্রহণ করে থানার এসআই মোঃ আলাল চলতি মাসে দুই পক্ষকে থানায় ডাকেন। সেখানে ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিরু সামছুন নাহার সহ দুই পক্ষের লোকজন উপস্থি ছিলেন। সেখানে জমি ক্রেতারা উপস্থিত থেকে পরবর্তীতে বসার সময় নিলেও কাল ক্ষেপন করেন। বর্তমান জমি ক্রেতারা বিভিন্ন দালালদের কে হাতে নিয়ে টাকা পাবেনা মর্মে জমির মালিক মতিয়ার রহমানকে টাকা না দিয়ে হয়রানি করছে। এ বিষয়ে ফুলবাড়ীর সাব রেজিষ্টার অফিসের দলিল লেখক মোঃ মনছুর ভেন্ডার ও তার সহকারীর সাথে কথা বললে তিনি জানান কিছু টাকা দিয়েছে বাকি টাকা জমি রেজিষ্টির দেওয়ার কথা থাকলেও ক্রেতাকে আর টাকা দেয়নি। যাহা আমরা স্বাক্ষী। এ ঘটনায় জমির মালিক মতিয়ার রহমান প্রশাষনের কাছে ধন্না দিয়েও ন্যায় বিচার না পেয়ে অবশেষে আদালতে মামলা করবেন বলে জানান। অপর দিকে জমি ক্রেতা মোঃ ইব্রাহিম জানান আমার পুত্রদের নামে জমি ক্রয় করেছি। পাওনা টাকা তাকে পরিশোধ করে দিয়ে জমি রেজিষ্ট্রি নিয়েছি। যাহার রিতি মত জমি রেজিষ্ট্রির সাব রেজিষ্ট্রার অফিসের কাগজপত্র রয়েছে। এ ব্যাপারে জমির মালিক মতিয়ার রহমান প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার চেয়েছেন।