April 16, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

বীরগঞ্জে মুজিববর্ষে শেখ হাসিনার দেয়া উপহার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন ৩৫০টি পাকা ঘর

বীরগঞ্জে মুজিববর্ষে শেখ হাসিনার দেয়া উপহার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন ৩৫০টি পাকা ঘর

বীরগঞ্জে মুজিববর্ষে শেখ হাসিনার দেয়া উপহার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন ৩৫০টি পাকা ঘর

খায়রুন নাহার বহ্নি, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বীরগঞ্জ উপজেলায় মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ৩৫০টি ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবার সেমি পাকা ঘর পাচ্ছেন। গতকাল সোমবার প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোঃ সানা উল্যাহ এ তথ্য জানান।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রায়ন প্রকল্প-২ এর অধীন আগামী জানুয়ারী মাসের মধ্যেই কর্মসুচী বাস্তবায়নের লক্ষমাত্রা নিয়ে উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ৩৫০টি ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারকে খাস জমিতে সেমী পাকা ঘর নির্মান করে দিচ্ছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের জানান, বিভিন্ন খাস জমি উদ্ধার সহ এই প্রকল্পের কাজ হচ্ছে।
তিনি আরো জানান, প্রতিটি পরিবারে বারান্দাসহ দুই কক্ষ বিশিষ্ট, বাথ রুম ও রান্না ঘরের ব্যায় ১লক্ষ ৭১হাজার টাকা এবং এই উপজেলায় ৩৫০টি পরিবারের ঘরের বিপরিতে সরকারী ৫ কোটি ৯৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্প বাস্ত বায়নের জন্য ১৬টি স্থানে ১১ দশমিক ৫০ একর খাস জমিতে প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল কাদের বলেন, এই প্রকল্পের কাজ শতভাগ নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসক মহামুদুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মোঃ মাহফুজুল আলম নির্মান কাজ পরিদর্শন করেছেন। এ ছারাও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ডালিম সরকার, উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল মান্নাফ ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোঃ সানা উল্যাহ নির্মান কাজের তদারকী করছেন।
উল্লেখ্য, গত ৫ নভেম্বর/২০২০ইং জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল প্রকল্পের নির্মান কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। উপকারভোগীগণ মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পেয়ে তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ প্রকাশ করেছেন।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের পুনর্বাসনের লক্ষে দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলায় বর্তমানে ৩৫০টি সেমী পাকা ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এই উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের সংখ্যা ২,০৪৭টি এরমধ্যে বর্তমানে ৩৫০টি পরিবারকে প্রকল্পের আওতায় পুনর্বাসন করা হচ্ছে এবং পর্যাক্রমে সকল গৃহহীনদের মুজিব বর্ষের মধ্যেই পুনর্বাসিত করা হবে।