December 2, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

শ্রমজীবী ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণের দাবিতে বাসদের ডি.সি'র মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ।

শ্রমজীবী ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণের দাবিতে বাসদের ডি.সি'র মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ।

শ্রমজীবী ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণের দাবিতে বাসদের ডি.সি’র মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ।


রংপুর সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের শ্রমজীবী ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণের দাবিতে রংপুর জেলা বাসদের উদ্যোগে ১৮নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় শাপলা চত্বরে সমাবেশ ও  সহস্রাধিক ভূমিহীনদের লালপতাকার মিছিল শেষে ডিসি অফিসে স্মারকলিপি পেশ করা হয়।জেলা বাসদ আহবায়ক কমরেড আব্দুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন কমিউনিস্ট পার্টির রংপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক কমরেড শাহীন রহমান, বাংলাদেশ  জাসদ রংপুর মহানগর সভাপতি গৌতম রায়,জেলা বাসদের সদস্য অমল সরকার, সাদেক হোসেন, মিজানুর রহমান,ভূমিহীন নেতা বাসদ সংগঠক রাশেদ, মনোয়ার, মঞ্জিলা রহিমা খাতুন প্রমূখ ।সমাবেশ পরিচালনা করেন বাসদের জেলা সদস্য সচিব কমরেড মমিনুল ইসলাম। বক্তাগণ বলেন, দেশের দারিদ্র্য পীড়িত ১০টি জেলার ৮টি ই রংপুর বিভাগে। এই অঞ্চলে ভারী কোন শিল্প কারখানা  ও গ্রামাঞ্চলে সারাবছর কাজ না থাকায় বিভাগীয় এই শহরে জনসংখ্যা বেড়েই চলেছে। ভূমিহীন-গৃহহীন শ্রমজীবীদের একটা বিরাট অংশ রিকশা, ভ্যানচালক, দোকান কর্মচারী, হকার, বাসা বাড়ির কাজের বুয়া, ছোট ছোট ভাসমান দোকানদার ইত্যাদি। এরা কোন রকমে ঝুপড়ি পেতে, কেউ অন্যের জায়গায়, কেউ ৪/৫ মিলে ১টি ঘর ভাড়া দিনাতিপাত করছে। দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন  ঊর্ধ্বগতির এ দুঃসময়ে তারা কোনভাবেই টিকে থাকতে পারছে না। তারা তাদের ছেলে মেয়েদের স্কুলে পাঠাতে পারছে না।সরকার ঘোষণা করেছে, মুজিব বর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবে না।অথচ মুজিব বর্ষের  সময় শেষ প্রান্তে পৌঁছলেও এ বিষয়ে কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেই। মুজিব বর্ষের শুরুতে ঢাক ঢোল পিটিয়ে কোন কোন জেলায় অল্প কিছু ঘর নির্মাণ করলেও রংপুর সিটির প্রকৃত ভূমিহীনরা এখনো কিছুই বরাদ্দ পায়নি। বক্তাগণ মুজিব বর্ষের অবশিষ্ট সময়ে অগ্রাধিকার দিয়ে প্রকৃত ভূমিহীনদের ভূমি ও স্থায়ী গৃহ নির্মাণের জোর দাবি জানান। পাশাপাশি অসহায় দুঃস্থ শ্রমজীবী মানুষের জন্য ওএমএস ও আর্মি রেটে রেশন চালুর দাবিও করেন।