September 17, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা রেলওয়ে প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা রেলওয়ে প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা রেলওয়ে প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

গাইবান্ধা ঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা রেলওয়ের প্রকৌশলী আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে আরো একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রকৌশলী রাজ্জাক রংপুর সদর উপজেলার মহাদেবপুর গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে। তিনি গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গায় বাংলাদেশ রেলওয়ের এসএসএই কার্যালয়ে উপ-সহকারী প্রকৌশলী পদে কর্মরত আছেন। ঘুষ দাবি করে না পেয়ে নিয়ম-বহির্ভূতভাবে কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই দুইটি দোকান ঘর ভেঙ্গে ও মালামাল নষ্ট করে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতিসাধনের অভিযোগ এনে উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ী নাদিম হোসেন। নাদিম উপজেলার মনমথ গ্রামের মৃত মনোয়ার হোসেনের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, নাদিম রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে বানিজ্যিক লাইসেন্স বাবদ অর্থ পরিশোধ করে রেলওয়ের জায়গা গ্রহন করেন। এরপর আধাপাকা দুইটি ঘর নির্মাণ করে দীর্ঘদিন যাবত কাপড় ও কনফেকশনারীর ব্যবসা করে আসছিলেন। এ ব্যবসাই ছিল তার জীবিকা নির্বাহের একমাত্র পথ।এমতাবস্থায় প্রকৌশলী রাজ্জাক বামনডাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশনের উন্নয়ন কাজের জন্য নাদিমের দোকানঘরগুলো ভেঙ্গে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছিলেন। সরকারী কর্মচারী হওয়া সত্বেও দোকানঘর দুইটি বহাল রাখতে প্রকৌশলী রাজ্জাক ৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন নাদিমের কাছে। এসময় নাদিম ও তার লোকজন ঘুষ দাবির প্রতিবাদ করলে রাজ্জাক ও তার লোকজন এ বছরের ৫ জুন দোকানঘর দুইটি গুড়িয়ে দিয়ে মালামাল নষ্ট করেন। এতে ১০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

দোকানঘর ভাঙ্গার বিষয়ে রেলওয়ের নিয়ম অনুসরন করা হয়নি। কোন নোটিশ দেয়া হয়নি। ভাংচুর ও উচ্ছেদকালে রেলওয়ের এষ্টেট কর্মকর্তা, ম্যাজিস্ট্রেট ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলনা। এছাড়া প্রকৌশলী রাজ্জাক ক্ষতিপূরন প্রদানের আশ্বাস দিয়ে তালবাহানা করায় অবশেষে বিজ্ঞ আমলী আদালত সুন্দরগঞ্জ, গাইবান্ধায় গত ২৯ আগস্ট সি.আর.নং-৩১৭/২১ মামলা দায়ের করেন নাদিম। রাজ্জাকের বিরুদ্ধে এটা দ্বিতীয় মামলা। প্রকৌশলী রাজ্জাক ছাড়াও এ মামলায় রেলওয়ের ট্রলিম্যান সাখাওয়াত, চৌকিদার সাইফুল, অস্থায়ী খালাশী জুয়েল রানা ও আব্দুল আউয়ালকে আসামি করা হয়েছে।এর আগে বামনডাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশনের প্লাটফর্ম সংস্কার কাজের শুরুতে স্টেশনের শোভাবর্ধনকারী শতবর্ষী কয়েকটি গাছ কর্তন করে টাকা আতœসাত করার অভিযোগ এনে প্রকৌশলী রাজ্জাকের বিরুদ্ধে গত ৬ জুন বিজ্ঞ আমলী আদালত সুন্দরগঞ্জ, গাইবান্ধা মামলা (সি.আর নং-২৩১/২১) দায়ের করেন বামনডাঙ্গার বাসিন্দা জয়নাল আবেদিন।এবিষয়ে উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুর রাজ্জাকের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি দ্বিতীয় মামলাটির নোটিশ পাওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, রেলস্টেশনের উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্ত করতেই মামলা করা হয়েছে। মামলাগুলোর সত্যতা নেই।