December 9, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

চেয়ারম্যানের সেচ্ছাচারিতায় সরকারি সোলার প্যানেল ও সেচপাম্প চেয়ারম্যানের খামার বাড়িতে গোপনে স্থাপন।

চেয়ারম্যানের সেচ্ছাচারিতায় সরকারি সোলার প্যানেল ও সেচপাম্প চেয়ারম্যানের খামার বাড়িতে গোপনে স্থাপন।

চেয়ারম্যানের সেচ্ছাচারিতায় সরকারি সোলার প্যানেল ও সেচপাম্প চেয়ারম্যানের খামার বাড়িতে গোপনে স্থাপন

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ি উপজেলার ৬নং দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদে সরকারি এল,জি,এস,পি প্রকল্প কতৃক একটি সোলার প্যানেল স্যালোটিউবয়েল বরাদ্দ আসে যাহার সরকারি মুল্য ৪লক্ষ ৫০হাজার টাকা। যা সরকারি জায়গায় স্থাপন করার নির্দেশনা ছিল এবং যে এলাকায় স্থাপন করা হবে সে এলাকার নিন্ম শ্রেণির কৃষক ও বর্গাচাষি গন  বিনামূল্যে সেচসুবিধা পাবে। এবং সোলার সেচপাম্পটি স্থাপন ও পরিচালনার ক্ষেত্রে সরকারি ভাবে বিশেষ বিধান রেখে নির্দেশনা আছে। ইউনিয়নের যে ওয়ার্ডে পাম্পটি স্থাপন করা হবে সেই সংশ্লিষ্ট  ওয়ার্ডের সাধারণ কৃষক গনকে নিয়ে একটি পরিচালনা কমিটি গঠিত হবে যে কমিটির সভাপতি হবে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড সদস্য। এবং সংশ্লিষ্ট এলাকায় প্রকাশ্যে সভার মাধ্যমে সেই কমিটি গঠিত হবে। দৌলতপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ আনারুল ইসলামের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এ বিষয়ে যানতে চাইলে তিনি বলেন আমি এ বিষয়ে কিছুই যানিনা এবং ইউপি চেয়ারম্যান আমাকে কখনোই অবগত করেননি। চেয়ারম্যান সাহেবের এরুপ সেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদ করার কারনে চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে পরিষদের কোন কর্মকান্ডে আমাকে সম্পৃক্ত করেন না এবং কোন বিষয় অবহিত করেন না। তিনি আরো যানান ২০১৯ সালে চেয়ারম্যান ইউনিয়নে বহিরাগত ভাড়া করা লোক এনে ইউনিয়ন বাসির নিকট হতে অতিরিক্ত হারে ট্যাক্স আদায় করা এবং সরকারি সল্প ও দীর্ঘমেয়াদী অনুদানভোগিদের নিকট হতে ও বয়স্ক, বিধবা,প্রতিবন্ধী, মাতৃত্বকালিন ভাতা এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কতৃক অসহায় ভুমিহীন মানুষের মাঝে ঘর প্রাপ্তদের নিকট হতে, দেশী-বিদেশী সংস্থা প্রদত্ত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে নলকুপ প্রাপ্তদের নিকট হতে অর্থ গ্রহণের প্রতিবাদে ফুলবাড়ি উপজেলা চত্তরে ইউনিয়নের জনগনকে সঙ্গে নিয়ে মানববন্ধন করি। যার কারনে চেয়ারম্যান সাহেব ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে বা  আমার ওয়ার্ডের জনগনকে সকল কর্মকাণ্ডে বঞ্চিত করেন। সোলার সেচপাম্প সন্পর্কে ৬নং দৌলতপুর ইউনিয়নের সচিব মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের নিকট যানতে চাইলে  তিনি যানান সঠিক নিয়ম না মেনেই গোপনে চেয়ারম্যান সাহেব পাম্পটি তার নিজ খামারে স্থাপন করেছেন যাহা বিধি বহির্ভুত। প্রকাশ্যে সভা হওয়ার কথা কিন্তু তা না করে চেয়ারম্যান সাহেব কাগজে কলমে তা দেখায়েছেন।    সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মাস্টারের সঙ্গে তার মুঠোফোনে বিষয়টি যানতে চাইলে তিনি বলেন ৪ নং ওয়ার্ড সদস্য আমাকে অসহযোগিতা করেন তাই আমি তাকে বলিনি। পাম্পটি স্থাপনকৃত এলাকার কৃষকগনের সেচকার্যে সুবিধা পাওয়ার বিষয়ে যানতে চাইলে নিজ নাম প্রকাশ না করার সার্থে তারা যানান সোলার সেচপাম্পটি চেয়ারম্যান তার খামারে ব্যবহার করেন আমরা আমাদের সামান্য বীজতলায় পানি দেওয়ার জন্য বললে খামার বাড়িতে বসবাসকারি চেয়ারম্যান সাহেবের ছোট ভাই পানি দিতে অসীকৃতি প্রকাস করেন। এ বিষয়ে ফুলবাড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে তার মুঠোফোনে যানতে চাইলে তিনি বলেন,  যেহেতু  আমার যোগদানের আগে  সোলার সেচপাম্প টি স্থাপন হয়েছে সেহেতু আমাকে সঠিক যানতে হবে। সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে সোলার সেচপাম্প টি সাধারণ কৃষকদের সুবিধার্থে সঠিক যায়গায় স্থাপন হোক এলাকার জনগন এমনটায় প্রত্যাশা করছেন।