August 2, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

শ্রীলংকার বিপক্ষে সুপার লিগে ঘুরে দাঁড়াতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ

শ্রীলংকার বিপক্ষে সুপার লিগে ঘুরে দাঁড়াতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ

শ্রীলংকার বিপক্ষে সুপার লিগে ঘুরে দাঁড়াতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ

গেল জানুয়ারিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথমবারের মত আইসিসি বিশ্বকাপ সুপার লিগে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের মাটিতে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিলো ক্যারিবীয়রা। তাই সুপার লিগে এখনো পয়েন্টের খাতা খুলতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে আগামীকাল থেকে শ্রীলংকার বিপক্ষে শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

নিজেদের প্রথম সুপার লিগের সিরিজে জয়ের স্বাদ চায় শ্রীলংকাও। অ্যান্টিগায় বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে।

করোনা আতঙ্কে দলের সেরা ১০জন খেলোয়াড়কে ছাড়াই বাংলাদেশ সফর করেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লড়াইয়ের ছিটে ফোঁটাও দেখাতে পারেনি ক্যারিবীয়রা। ম্যাচ তিনটি যথাক্রমে ৬ উইকেটে, ৭ উইকেটে ও ১২০ রানে হারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে টেস্ট সিরিজে টাইগারদের হোয়াইটওয়াশ করে তারুণ্যনির্ভর দলটি।

ওয়ানডে সিরিজে সবগুলো ম্যাচ হেরে যাওয়ায় বিশ্বকাপ সুপার লিগে কোন পয়েন্ট পায়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবার শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচে পয়েন্টের দিকে চোখ তাদের।

দলের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড বলেন, আমাদের লক্ষ্য সিরিজে ভালো পারফরম্যান্স করা। কারণ সিরিজটি বিশ্বকাপ সুপার লিগের সঙ্গে জড়িত। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটি আমাদের জন্য ভালো যায়নি। এই সিরিজ দিয়ে আমাদের সামর্থ্য প্রমান করতে হবে, আমরাও ওয়ানডেতে ভালো দল।

এখনো বিশ্বকাপ সুপার লিগে কোন ম্যাচ খেলেনি শ্রীলংকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজটিই হবে লংকানদের বিশ্বকাপ সুপার লিগে প্রথম সিরিজ। তাই বিশ্বকাপ সুপার লিগে পথচলাটা স্মরনীয় করতে রাখতে চায় শ্রীলংকা।

দিমুথ করুনারত্নে বলেন, বিশ্বকাপ সুপার লিগে প্রথম খেলতে নামছি আমরা। আমাদের লক্ষ্য থাকবে সিরিজ জয়। সরাসরি বিশ্বকাপে খেলতে হলে প্রত্যেকটি সিরিজই গুরুত্বপূর্ণ।

ওয়ানডে সিরিজের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ২-১ ব্যবধানে হেরেছে লংকানরা। তবে টি-২০ সিরিজ হারের প্রতিশোধ ওয়ানডেতে নিতে চান করুনারত্নে। তিনি বলেন, টি-২০ সিরিজে আমরা হেরেছি। তবে ওয়ানডেতে আমরা ভালো করতে চাই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল: কাইরন পোলার্ড (অধিনায়ক), শাই হোপ, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, ড্যারেন ব্রাভো, জেসন হোল্ডার, আকিল হোসেন, আলজারি জোসেফ, এভিন লুইস, কাইল মায়ার্র্স, জেসন মোহাম্মেদ, নিকোলাস পুরান, রোমারিও শেফার্ড ও কেভিন সিনক্লেয়ার।

শ্রীলংকা দল: দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), দাসুন শানাকা, দানুসকা গুনাথিলাকা, পাথুম নিশানকা, অ্যাশেন বান্দারা, ওশাদা ফার্নান্দো, দিনেশ চান্দিমাল, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, নিরোশান ডিকবেলা, থিসারা পেরেরা, কামিন্দু মেন্ডিস, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, রমেশ মেন্ডিস, নুয়ান প্রদীপ, আশিথা ফার্নান্দো,  দুসমন্তু চামিরা, আকিলা ধনাঞ্জয়া, লক্ষণ সান্দাকান, দিলশান মাদুশঙ্কা, ও সুরাঙ্গা লাকমল।