October 21, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

কৃষকের পাশে রংপুর জেলা ছাত্রলীগ

কৃষকের পাশে রংপুর জেলা ছাত্রলীগ

কৃষকের পাশে রংপুর জেলা ছাত্রলীগ

করোনার ভয়াবহ থাবা গ্রামীণ জনপদে অগ্রগতির চাকাকে টেনে ধরেছে। অদৃশ্য ভাইরাসের প্রভাব কৃষক ও কৃষিকে ফেলেছে বেকায়দায়। তৈরি করেছে অর্থ ও শ্রমিক সংকট। চলমান পরিস্থিতিতে অর্থাভাবে ধান কাটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েন রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার কৃষক সুধীর চন্দ্র সাধন।
পাকা ধান কাটতে না পরায় ক্ষেতেই ধান নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছিল তার। এমন অবস্থায় তার দুশ্চিন্তার অবসান ঘটিয়ে পাশে এসে দাঁড়িয়েছে রংপুর জেলা ছাত্রলীগ।
বুধবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে মিঠাপুকুরের পায়রাবন্দ ইউনিয়নের ইসলাম গ্রামের কৃষক সুধীর চন্দ্র সাধনের ২ বিঘা জমির ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছে নেতাকর্মীরা।
রোজা থেকে অসহ্য গরমের মধ্যেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কৃষকের পাশে এগিয়ে এসেছে এই ছাত্র সংগঠনটি। মানবিক সহায়তামূলক এ কার্যক্রমে নেতৃত্ব দেন রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনি।
ছাত্রলীগের অর্ধশত নেতাকর্মী কৃষকের সাধনের ধান কাটার পর মাড়াই করে গোলায় পৌঁছে দেন। কৃষক সুধীর চন্দ্র সাধন বলেন, ক্ষেতের ধান পাকার পরও তা কাটতে না পারায় দুশ্চিন্তায় পড়েছিলাম। কালবৈশাখী ঝড় বৃষ্টির কারণে ক্ষতির শঙ্কাও করেছিলাম।
তিনি বলেন, মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পারি ছাত্রলীগ অসহায় কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে। তা দেখে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে অন্তত ৫০ জন আমার ক্ষেতের ধান কেটে দিয়েছে। এজন্য আমি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞ।
কৃষক সুধীর চন্দ্র আরও বলেন, ছেলেগুলো রোজা রেখে আমার ধান কেটেছে। শুধু তাই নয়, ২ বিঘা জমির ধান কাটা শেষে নিমিষেই তা মাড়াই করে বাড়ির গোলা পর্যন্ত পৌঁছে দিয়েছে। আমার কোনো খরচ হয়নি।
ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনি বলেন, অর্থ ও শ্রমিক সংকটে অনেকে পাকা ধান কাটা নিয়ে শঙ্কায় পড়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে সারাদেশে কৃষকদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ।
এছাড়া ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে অসহায় রোগীদের আর্থিক ও ওষুধসামগ্রী সহায়তা দেওয়া হয়েছে। করোনার শুরু থেকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রীও বিতরণ করা হয়। এখনো সেই কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে সাধ্যমতো চেষ্টা করে যাচ্ছি।