August 2, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

গাইবান্ধায় ভেড়ামারা রেলওয়ে ব্রিজ সংলগ্ন কাঠের সেতুটির বেহাল অবস্থা

গাইবান্ধায় ভেড়ামারা রেলওয়ে ব্রিজ সংলগ্ন কাঠের সেতুটির বেহাল অবস্থা

গাইবান্ধায় ভেড়ামারা রেলওয়ে ব্রিজ সংলগ্ন কাঠের সেতুটির বেহাল অবস্থা

গাইবান্ধা ঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নে ভেড়ামারা রেলওয়ে ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় স্থানীয় যুবকদের উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত কাঁঠের সেতুটির একাংশ বিগত বন্যার পানির তোড়ে ভেসে গেছে। ওই স্থানে অস্থায়ী একটি বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে যাতায়াত করতে হচ্ছে। এতে ৭টি ইউনিয়নের প্রায় ২৫ হাজার মানুষ পথ চলাচলে দুর্ভোগের কবলে পড়েছে।
উল্লেখ্য, গাইবান্ধার ঘাঘট নদীতে ভেড়ামারা ব্রিজ এলাকার যুবকদের উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে ১৭০ ফিট দীর্ঘ একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হয়। বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণের এক বছর পর তা নড়বড়ে হলে পরের বছর পুনরায় স্থানীয় যুবকদের উদ্যোগে ওই স্থানে একটি কাঠের সেতু নির্মাণ করা হয়। গাইবান্ধা রেল স্টেশনের প্রায় দুই কি.মি. উত্তরে অবসি’ত ঘাঘট নদীর এই রেলওয়ে ব্রীজটি পারাপার করেই প্রতিদিন গাইবান্ধার উত্তর অঞ্চলের ছাত্র-ছাত্রী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রায় ২৫ হাজার সাধারণ মানুষ জীবন জীবিকাসহ নানা প্রয়োজনে গাইবান্ধা শহরে আসেন। রেলওয়ে ব্রিজ দিয়ে আসতে বয়স্ক, শিশু ও নারীদের নানা দুর্ভোগ পোহাতে হয়। কিন’ তার পরেও বিকল্প কোন পথ না থাকায় রেলওয়ে ব্রিজ দিয়েই ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হতো তাদের। বিকল্প পথ হিসেবে যুগ যুগ ধরে ৭ কিলোমিটার পথ ঘুরে গাইবান্ধা শহরে যাতায়াত করতে হতো এসব মানুষদের।
এব্যাপারে এলজিডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান কবির জানান, ওই স্থানে এলজিইডির তত্ত্বাবধানে নতুন সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সেতুটি নির্মাণে সরকার ৭ কোটি ১৮ লাখ টাকা ব্যয় বরাদ্দ করেছে।