October 25, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

তিন কিশোর শ্রমিককে চাল চুরির অপবাদ রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে জখম

তিন কিশোর শ্রমিককে চাল চুরির অপবাদ রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে জখম

তিন কিশোর শ্রমিককে চাল চুরির অপবাদ রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে জখম

হাসপাতালে ভর্তি, রফাদফা করতে প্রভাবশালীদের চাপ!

ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের ডাকবাংলায় চাল চুরির অপবাদ দিয়ে তিন কিশোর শ্রমিককে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে জখমের পর হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ভিকটিম পরিবারকে রফাদফা করতে প্রভাবশালী মহল চাপ প্রয়োগ করছে মর্মে অভিযোগ করা হচ্ছে। ২১শে ফেব্রুয়ারি রবিবার ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ডাকবাংলা ত্রিমহনী বাজারে চাল চুরির অপবাদ দিয়ে তিন কিশোর শ্রমিককে রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি রাসেলের পিতা মাহতাব উদ্দিন ও তার চাচা আঃ খালেক সাংবাদিকদের জানায়, সদর উপজেলার ডাকবাংলা ত্রিমোহনী বাজারে উত্তর নারায়নপুর গ্রামের মৃত সালাম মিয়ার ছেলে শিপন মিয়ার (৩৫) “শিপন এন্টারপ্রাইজ” নামে খুদ ও ভূষির দোকান রয়েছে। শিপনের সেই দোকানে গত ৪দিন আগে কথিত চাল চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে রবিবার রাত ৮টার দিকে শিপন সহ অজ্ঞাত ৭/৮ জন মিলে বাদপুকুরিয়া গ্রামে অবস্থিত কামালের চাতাল ঘরে কাজ করা শ্রমিক সিরাজের ছেলে উজ্জ্বল (১৭), নাহার উদ্দীনের ছেলে জাহাঙ্গীর (১৪) সহ উক্ত মিলেরই শ্রমিক মাহতাবের ছেলে ট্রাকের হেলফার রাসেল (১৫) কে জোর পূর্বক উত্তর নারায়নপুর হাইস্কুলের ভিতরে তুলে নিয়ে যায়। এসময় চাল চুরির অপবাদ দিয়ে তিন কিশোর শ্রমিককে বেপরোয়া ভাবে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে জখম ও নির্যাতন করে। সেসময় তাদের শরীরে আঘাতের উপর আঘাত করে তাদের সারা শরীরে ফোলা ও জখম করে। মদ্যযুগীয় কায়দায় পিটানোর পর সেখান থেকে শিপন তার দোকানে নিয়ে তাদের পুনরায় মারপিট করতে থাকে। এসময় তাদের আর্তচিৎকার শুনে স্থানীয়রা ডাকবাংলা ক্যাম্পে খবর দিলে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে বাড়িতে খবর দেই। পরে তাদের পরিবার তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তারা সকলেই সদর হাসপাতাল চিকিৎসা নিয়ে সোমবার বিকালে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসে। এবিষয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে তোলপাড় সৃষ্টি হচ্ছে। এদিকে তিন কিশোর শ্রমিকের অবিভাবক ও স্থানীয়রা চাল চুরির অপবাদ দিয়ে তিন কিশোর শ্রমিককে রড দিয়ে পিটিয়ে জখমের ঘটনায় মুল অপরাধি শিপনসহ অন্যান্য আসামিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করেছেন। এঘটনায় একটা অভিযোগ পেয়েছি ও ডাকবাংলা ক্যাম্প তদন্ত করে আইনানুগ ব্যাবস্থা নিবেন মর্মে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ঝিনাইদহ সদর থানার ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান। এব্যাপারে ডাকবাংলা চাল কল মালিক সমিতীর সাধারণ সম্পাদক আক্তার ভান্ডারি জানান, আগামি শুক্রবার সকালে ডাকবাংলা ত্রিমহনী বাজারে সালিশের মাধ্যমে বিচার করা হবে।