June 24, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

প্রেস ক্লাবের মিথ্যা মামলায় আগাম জামিন পেলেন ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতারা

প্রেস ক্লাবের মিথ্যা মামলায় আগাম জামিন পেলেন ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতারা

প্রেস ক্লাবের মিথ্যা মামলায় আগাম জামিন পেলেন ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতারা

জে, ইতি ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ ঠেকাতে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতাকর্মীদের উপর সন্ত্রাসি কায়দায় হামলার পর ক্ষমতার অপব্যাবহার করে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মনসুর আলীর দায়ের করা মিথ্যা মামলা থেকে ৭ জন সংবাদিককে আগাম জামিন দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী সদর আদালতের বিচারক আরিফুল ইসলাম তাদের আগাম জামিন মঞ্জুর করেন। ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির পক্ষের আইনজীবি এ্যাড. আবু তোরাব মানিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আগাম জামিন পাওয়া সাংবাদিকরা হলেন- ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ও জিটিভির জেলা প্রতিনিধি এমদাদুল হক ভূট্রো ,সাধারন সম্পাদক ও বাংলাদেশ প্রতিদিন, নিউজ২৪ এর জেলা এর জেলা প্রতিনিধি আব্দুল লতিফ লিচু, অর্থ সম্পাদক ও সময় টিভির প্রতিনিধি জিয়ায়ুর রহমান বকুল, দপ্তর সম্পাদক জয় মহন্ত অলক, সিএনএন বাংলা টিভির স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল আলিম বিজয় টিভির জেলা প্রতিনিধি মামুনুর রশিদ মিন্টু ও নিউজ নেট ২৪ বিডি ডট কম এর স্টাফ রিপোর্টার সুমন। জানা গেছে, গত ১৮ মার্চ ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকদের সাথে দন্দে জড়ায় প্রেস ক্লাবের সভাপতি মুনসুর অঅলী ও অন্যান্য সাংবাদিকরা । পরে নরেশ চৈাহান রোড়ে সময় টিভির প্রতিনিধির অফিসে এসে ফিল্মি স্টাইলে ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ও দপ্তর সম্পাদককে মারধর করে। পরে মারতে মারতে তুলে যায় ভুট্টোকে। ধারনকৃত সিসিটিভির একটি ফটেজের ভিড়িও ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ।
ওইদিনই প্রেস ক্লাবের নেতা হিসেবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে মনসুর আলী। অন্যদিকে নির্যাতনের শিকার হয়ে ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ও সম্পাদক বাদি হয়ে পৃথক দুটি মামলা করেন। এছাড়া সময় টিভির প্রতিনিধির অফিসে এসে সন্ত্রাসী কায়দায় মারপিট করে ভুট্টোকে তুলে নিয়ে যাওয়া ক্ষতিসাধন করায় প্রেসক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী ও সম্পাদকসহ কয়েকজনে আসামী করে আরো একটি মামলা করেন।
ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ লিটু বলেন, আমাদের লোকজনকে মারধর করে উল্টো আমাদেরকে মামলার আসামী করা হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্তের আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে।
আমরা প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার দাবি করছি। তাছাড়া প্রেস ক্লাবের নেতাদের এমন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দেখে আমরা হতবাক হয়েছি। ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি এমদাদুল হক ভুট্টো জানান, আমরা আইনের প্রতি সর্বদা শ্রদ্ধাশীল। মামলায় আইনগত ভাবে লড়াই করবো।