October 24, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

ফুলবাড়ীতে আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট চোরাকারবারীদের হাতে ॥

ফুলবাড়ীতে আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট চোরাকারবারীদের হাতে ॥

ফুলবাড়ীতে আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট চোরাকারবারীদের হাতে ॥

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি
ফুলবাড়ী রেলস্টেশনে সকল আন্তঃনগর ট্রেনের টিকেট বিক্রিতে অনিয়ম দূর্নীতি। ট্রেনের টিকেট এখন চোরাকারবারীদের হাতে। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে ট্রেনের টিকেট। কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন ধরে আন্ত:নগর ট্রেনগুলি বন্ধ ছিল। সরকারের নির্দেশনায় চলতি বছরের মে মাসে রেলওয়ে মন্ত্রী সাধারণ মানুষের যাতে ভোগান্তি না হয় সে দিকে লক্ষ্য রেখে সীমিত আকারে ট্রেন চালু করেন। তবে বিধিমালা অনুযায়ী প্রত্যেক ট্রেন যাত্রীকে অনলাইনের মাধ্যমে রেলের টিকেট সংগ্রহ করার নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশমালা উপেক্ষা করে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী রেলস্টেশনে এক শ্রেণির চোরাকারবারী অনলাইনের মাধ্যমে আন্ত:নগর ট্রেনের সমস্ত টিকেট একযোগে বের করে নিয়ে সেই টিকেট সাধারণ যাত্রীদের কাছে চড়াও দামে বিক্রি করছেন এমন অভিযোগ যাত্রীদের। গত বৃহ:স্পতিবার ফুলবাড়ী উপজেলার পৌরসভা এলাকার চকচকা গ্রামের সবুজ নামে জনৈক ব্যক্তি ঢাকাগামী আন্ত:নগর ট্রেনের টিকেট চোরাকারবারীদের কাছে ৮ শত টাকায় কিনছেন। অথচ সেই টিকেটের দাম সরকারের রেট অনুযায়ী ৪২৫ টাকা। সাধারণ যাত্রীরা অনলাইনে ঢুকে টিকেট কাটতে গেলে দেখা যায় ফুলবাড়ী স্টেশনের নির্ধারিত সিটের টিকেট আগেভাগে চোরাকারবারীরা অনলাইনের মাধ্যমে কেটে রেখেছেন। আর সেই টিকেট পরবর্তীতে দালালদের মাধ্যমে চড়াও দামে বিক্রয় করছেন সাধারণ যাত্রীদের কাছে। যাত্রীরা ঢাকাগামী ট্রেনের অনলাইনে কাটতে গিয়ে কোন টিকেট পাচ্ছেন না।
এ বিষয়ে ফুলবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন মাষ্টার মোঃ রফিকুল ইসলাম চৌধুরীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, ২৫% টিকেট কাউন্টার থেকে দেওয়া হয়। আর ২৫% টিকেট অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রয় করা হয়। অনলাইনের মাধ্যমে কারা এসব টিকেট সংগ্রহ করে চড়া দামে সাধারণ যাত্রীদের কাছে বিক্রি করছে তা বুঝা মুশকিল। এক শ্রেণির লোকজন এ কাজে জড়িত থাকতে পারে। তবে কাউন্টার থেকে যেসব টিকেট আমরা সরাসরি রেলের যাত্রীদের কাছে বিক্রি করছি। তা সরকারের নির্ধারিত মূল্যের। নির্ধারিত মূল্যের বাহিরে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে অনলাইনে যারা আন্ত:নগর ট্রেনের টিকেট কালো বাজারে চড়া দামে যাত্রীদের কাছে বিক্রি করছে তা খতিয়ে দেখা হবে।