May 12, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

ফুলবাড়ীতে জাল দলিল সৃষ্টিকারীদের কে গ্রেপ্তার ও তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

ফুলবাড়ীতে জাল দলিল সৃষ্টিকারীদের কে গ্রেপ্তার ও তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

ফুলবাড়ীতে দুটি জাল দলিল সৃষ্টি কারীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ॥

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে মহোন সনের একই জমির এককই নম্বর ও একই তারিখের দুইটি ভলিওম বিহীন দুটি জাল দলিল সৃষ্টি করায় তার বিরুদ্ধে মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল ওরফে চেয়াম্যান দুলাল গত ০৯/০২/২০২১ ইং তারিখে লিখিত ভাবে বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দাখিল করেন।
ফুলবাড়ী উপজেলার এলুয়াড়ী ইউপির মৃত সিরাজ উদ্দীন প্রামানিক এর পুত্র মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল এর লিখিত অভিযোগে জানা যায়, তফসিল বর্ণিত জমির সিএস রেকডিয় জমির মালিক ছিলেন ফেলানী ও মোহিনী পিতা পোয়াতু রাম, সাং-শমসের নগর, সাবেক থানা-পার্বতীপুর, বর্তমান-ফুলবাড়ী তাদের মৃত্যুর পর এসএ রেকড শুরু হলে তাদের একমাত্র ওয়ারিশ শ্রী হরিমোহন এর নামে এসএ রেকড প্রস্তুত ও প্রকাশ হয়। এসএ রেকডে ভূলবসত কুঞ্জু লাল পাটারী , পিতা চুনকু লাল পাটারী এর নামটি সন্নিবেশিত হয়। উচ্চ আদালতে সংশোধনের জন্য মামলা বিচারাধীন রয়েছে। যাহার মামলা নং-৯/২০২১ অন্য, জেলা দিনাজপুর যুগ্ন জেলা জজ ১ম আদালত। তফসিল বর্ণিত জমি বাংলাদেশ সরকার বাহাদুরের প্রকাশিত ভিপি খ-তালিকায় ভূল বসত অন্তভূক্ত করা হয়েছে। যাহা অবমুক্তির জন্য ইতি পূর্বে সহকারী কমিশনার ফুলবাড়ী বরাবর আবেদন করেছেন যাহা বিচারাধীন রয়েছে। উক্ত তফসিল ভূক্ত জমি ফুলবাড়ী উপজেলার রাঙ্গামাটি গ্রামে মৃত ডাঃ হোপনু সরেন এর পুত্র মোহন সরেন একটি ভলিয়ম বিহীন রেকড রুমে নকল পাওয়া যায় নাই। যাহার দলিল নং-১৮২, তারিখ-০৩/০১/১৯৬৫ইং। উক্ত দলিলে দাতা দেখানো হয়েছে একজন ব্যক্তিকে যাহার নাম কুঞ্জুলাল পাউরিয়া পতা মৃত চুনকু লাল পাউরিয়া জাতি সাওতাল, গ্রাম-বলিহারপুর, থানা ফুলবাড়ী। উক্ত দলিলে গ্রহিতা দেখানো হয়েছে শ্রীমতি সরলা মুর্মু স্বামী শ্রী হোপনু সরেন, গ্রাম রাঙ্গামাটি। তিনি মোহন সরেন এর মাতা। মোহন সরেন ইতি পূর্বে ভূমি অফিসে কাগজপত্র দাখিল করে কৌশলে তফসিল ভূক্ত জমি খারিজ করে নেন। যাহার খারিজ কেস নং-১৮২৫/১৪১৫ উক্ত দলিলের জমির তফসিল মৌজা বলিহারপুর, খতিয়ান নং-৫৭ জেএল নং-৪৩, দাগনং-৩২৩, পরিমান-১৯ শতক, দাগনং-৩২২, পরিমান-১.২৩ শতক মোট জমি ১.৩৮ শতক উক্ত খারিজ এর বিষয়ে এসস এ রেকডিও মালিক এর পুত্র শ্রী গোপাল রায় অবগত হলে খারিজটি বাতিলের আবেদন করেন। উভয়ের শুনানি অন্তে তৎকালীন বিজ্ঞ সহকারি কমিশনার খারিজটি বাতিল করে দেন। যাহার মোকদ্দমা নং-ী১১/৯২/১৪-১৫ নং মিস কেস। ইতি পূর্বে মোহন সরেন উক্ত দলিল ব্যবহার করে জনৈক্য ইমামুল মোস্তাকিম এর বরাবরে একটি বায়না নামা দলিল করে দেন। যাহার বায়না নামা দলিল নং-৩২৮৭/১৬। তারিখ-০৩/০৮/২০১৬ ইং । উক্ত দালিলে এসএ রেকডীয় মালিক কুঞ্জু লাল পাটারির নিকট থেকে প্রাপ্ত হন। উক্ত বানা নামা দলিলে হরিমনের নাম উল্লেখ নাই। উক্ত দলিলে দাতা দেখানো হয়েছে হরিমন রায় ও কুঞ্জু লাল পাটারি। একই জমির দুটি জাল দলির সৃষ্টি করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল সংশ্লিষ্ট উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের আসুহস্তক্ষেপ কামনা করেন।