July 31, 2021

Jagobahe24.com news portal

Real time news update

বীরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে আলোচন সভা

বীরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে আলোচন সভা

বীরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে আলোচন সভা

খায়রুন নাহার বহ্নি, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের সম্মানী ভাতা ২০হাজার টাকা উন্নীত করায় দিনাজপুরের বীরগঞ্জে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

শুক্রবার বিকালে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বীরগঞ্জ উপজেলা কমান্ডের আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের।

সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যাপক কালিপদ রায়ের সভাপতিত্বে এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএমএ খালেকের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক দলিলুর রহমান, গবেষক ১৯৭১ গণহত্যা নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র, খুলনা সহকারী অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার সেন।
অভিনন্দন জানিয়ে আরও বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব বছির উদ্দিন আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা কৃষ্ণ চন্দ্র বর্মন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রেমানন্দ রায়, সাংবাদিক মোঃ আব্দুর রাজ্জাক প্রমূখ।
এসময় উপজেলা কমান্ডের বীর মুক্তিযোদ্ধাগন ও প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত স্থানীয় সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে যারা মাতৃভূমির জন্য মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল আমাদের মুক্তিযোদ্ধারা। জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন ভাবে সন্মানিত করেছেন। ১৯৯৬সালে প্রথমবারের মতো দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের ৩শ’ টাকা সন্মানী ভাতা প্রদান করা হয়। আজ তা পর্যায়ক্রমে ২০ হাজার টাকায় উন্নীত হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের সন্মানী ভাতা বৃদ্ধির মধ্যদিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। এ সব সম্ভব হয়েছে জাতির জনকের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তিনি দেশের মানুষকে মাথা উচু করে সন্মানের সাথে বাঁচতে শিখিয়েছেন। বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে তুলে ধরেছেন। বৈশিক মহামারী করোনাকালে কাউকে না খেয়ে থাকতে হয়নি। তাই তার কাছে দেশ এবং দেশের নিরাপদ।
আলোচনা সভা শেষে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত, বিশ্ব থেকে করোনা মুক্তি এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে বিশেষ দোয়া প্রার্থনা করা হয়।