December 1, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

মধ্যপাড়ার পাইকপাড়া গ্রামে স্ত্রী হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের পর পিবিআই এর তদন্ত শুরু

মধ্যপাড়ার পাইকপাড়া গ্রামে স্ত্রী হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের পর পিবিআই এর তদন্ত শুরু

মধ্যপাড়ার পাইকপাড়া গ্রামে স্ত্রী হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের পর পিবিআই এর তদন্ত শুরু

দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার হরিরামপুর ইউপির মধ্যপাড়া পাইকপাড়া গ্রামে পরিবার এর লোকজন কর্তৃক স্ত্রী হত্যার ঘটনায় দিনাজপুরের পিবিআই এর তদন্ত শুরু। চিরিরবন্দর উপজেলার চকমুশা (হিন্দুপাড়া) গ্রামের মোঃ আশরাফ আলীর স্ত্রী মোছাঃ মোকছেদা খাতুন (৩৮) এর দিনাজপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৫ (পার্বতীপুর), দিনাজপুর এ দায়ের কৃত মামলা সুত্রে জানা যায় গত ১০ মাস আগে মধ্য পাড়া পাইকপাড়া গ্রামের মোঃ আজিমুল হক এর পুত্র মোঃ শফিউল ইসলাম ২৭ এর সাথে শরিয়ত মোতাবেক তার কন্যা ডিসিষ্ট মোছাঃ আয়শা সিদ্দিকার বিবাহ হয়। বিবাহের পর থেকে তার মেয়ের উপর যৌতুকের দাবি তুলে প্রায় মারডাং করত শশুরবাড়ীর লোকজন। গত ১০/০৬/২০২১ইং তারিখে মোঃ আব্দুল আজিজ ইসলাম ওরফে রাজু (৩৫) শশুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে সকাল ৮টায় একাকি পাইয়া মোকছেদা খাতুনের কন্যা ডিসিষ্ট মোছাঃ আয়শা সিদ্দিকা কে কুপ্রস্তাব দেয়। এর পর তার কন্যা ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে। ঘটনাটি তার পরিবারকে আয়শা সিদ্দিকা জানালে তার পিতা মাতা বিষয়টি চুপ থাকতে বলে। গত ১৬/০৬/২০২১ইং তারিখে সন্ধ্যা ৭টায় শফিউল ইসলাম তার স্ত্রী কে নিয়ে ডিসিষ্ট এর বাড়িতে যায় এবং ঐ রাতে উক্ত বিষয় নিয়ে একপ্রকার কথাকাটাটি হয়। উত্তেজিত হইয়া সুকৌশলে আব্দুল মজিদের কন্যা মোছাঃ রোজিনা খাতুন (২৯) ও মোঃ আজিমুল হকের স্ত্রী মোছাঃ সবুজা বেগম (৫৫) কে সঙ্গে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে মোছাঃ মকছেদা খাতুনের কন্যা মোছাঃ আয়শা সিদ্দিকাকে হত্যা করবে মর্মে হুমকি দেন। গত ১৭/০৬/২০২১ইং তারিখ রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় মোঃ আব্দুল আজিদ এর স্ত্রী মোছাঃ রোজিনা খাতুন মেয়ের পরিবারকে জানান আপনার কন্যা গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এই ঘটনা সুনার পর তার পরিবারের লোকজন মধ্যপাড়া গ্রামে জামাইয়ের বাসায় গিয়ে দেখেন ১০ থেকে ১২ জন পুলিশ বাড়িতে রয়েছে। সেখানে দেখা যায় তার মেয়ের ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ রয়েছে। এই ঘটনায় পার্বতীপুর মডেল থানা একটি ইউ,ডি মামলা দায়ের হয়েছে। যাহার নং- ১২ তারিখ- ১৭/০৬/২০২১ইং। ঐ দিনে পার্বতীপুর থানার পুলিশ লাশ পোস্টমার্টাম এর জন্য এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। পার্বতীপুর মডেল থানায় মামলা করতে গেলে থানা কর্তৃপক্ষ মামলা গ্রহণ না করায় নিহতের মা মামলার বাদি মোছাঃ মোকছেদা খাতুন কে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন। এ কারনে দিনাজপুর আদালতে মোঃ আব্দুল আজিদ ইসলাম ওরফে রাজু (৩৫) পিতা মাজেদ আলী, মোছাঃ রুজিনা খাতুন (২৯) স্বামী মোঃ আব্দুল আজিদ ইসলাম ওরফে রাজু সাং চাঁদপাড়া ফুলবাড়ী দিনাজপুর, মোঃ আজিমুল হক (৬৬) পিতা- মৃত আজগার আলী, মোছাঃ সবুজা বেগম (৫৫) স্বামী মোঃ আজিমুল হক, মোঃ সফিউল ইসলাম (২৭) পিতা মোঃ আজিমুল হক সর্ব সাং মধ্যপাড়া পাইকপাড়া পার্বতীপুর দিনাজপুর ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং- সি.আর ১৪৫/২১ স্মারক নং- ৩১৭ তাং-০৭/০৯/২০২১ইং মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেন। গত ২৪/০৯/২০২১ইং তারিখে দিনাজপুর পিবিআই ঘটনা স্থলে গিয়ে তদন্ত করেন। এই হত্যা ঘটনার প্রকৃত আসামি যারা তাদের সঠিক বিচার যাতে হয় সে জন্য মোকছেদা খাতুন কন্যা হত্যার ন্যায় বিচার দাবী করেন।