September 22, 2021

Jagobahe24.com

সত্যের সাথে আপোসহীন

রাজারহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

রাজারহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

রাজারহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

এ.এস.লিমন, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার চাকিপশার ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ও ইউপি সচিব আশরাফুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। গত ২৪ জুলাই ওই ইউনিয়নের ১০ জন ইউপি সদস্য তাদের বিরুদ্ধে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক ও রাজরাহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দাখিল করার পর থেকে গত ৪দিন ধরে ইউপি পরিষদ কার্যালয়ে তালা দিয়ে প্রতিদিন ইউপি চেয়ারম্যানের বিচার দাবী করে ১০ ইউপি সদস্য পরিষদ কার্যালয় চত্বরে প্রতিবাদ করে আসছে। এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ দফায় দফায় ইউপি সদস্যদের ম্যানেজ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রাজারহাট উপজেলার চাকিপশার ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ও সচিব আশরাফুল ইসলাম ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ সভা, মাসিক সভা, বিশেষ সভা না করে কৌশলে সদস্যদের কাছ থেকে রেজুলেশন বহিতে স্বাক্ষর করে নিয়ে কোন প্রকার নিয়ম নীতিকে তোয়াক্কা না করে জন্ম নিবন্ধন, হোডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইন্সেস এর নির্ধারিত ফি ছাড়া অতিরিক্ত ফি আদায় করে আসছে এবং প্রায় ৫ লাখ টাকা ইউনিয়ন পরিষদের ব্যাংক হিসাব শাখায় জমা না রেখে আতœসাৎ করেছে। এছাড়া গত ২০২০-২১ অর্থ বছরের সামাজিক বনায়ন উন্নয়ন প্রকল্পের ঠাঁটমারী ব্রীজ হতে রাজরাহাট রেল গেট পর্যন্ত ও রেলগেট হতে নাওডারা ব্রীজ পর্যন্ত প্রায় ৭০হাজার উত্তোলন করে কাজ না করেই সমূদয় আতœসাৎ করে। চেয়ারম্যান ও সচিব গত ২০২০-২১ অর্থবছরের দু:স্থ ও অসহায় পরিবারের জন্য ৪৫০টি ভিজিডি কার্ডের মধ্যে ৯টি কার্ডের ৩০ কেজি করে চাল র্দীঘ ৮ মাস ধরে বিক্রয় করে তা আতœসাত করে আসছে। খোওয়াড়া ইজারাদার, এডিপি, এলজিএসপি, হাটবাজার, ভূমি উন্নয়ন কর এর টাকা ভূয়া রেজুলেশন করে মনগড়া প্রকল্প দাখিল করে টাকা উত্তোলন করে আতœসাত করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। ভূমিহীনদের বিনা টাকায় ঘর দেয়ার প্রতিশ্রুতি থাকলেও চেয়ারম্যান প্রতিটি ঘরের জন্য ৬০-৮০ হাজার করে টাকা ঘুষ নিয়ে ঘর বরাদ্দ দিয়েছে। এ ছাড়াও আরএমপি প্রকল্পের আওতায় দু:স্থ ও বিধবা মহিলাদের নিয়োগ জনপ্রতি ২৫-৩০ টাকা করে নিয়ে তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করেন চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ। করোনার জন্য সরকার ২মে:টন চালসহ তেল, ডাল, চিনি,লবন ও ৫০হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় উক্ত চাল ও টাকা ১মে:টন চাল ও ২৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে বিতরণ করে বাকী চাল ও টাকা আতœসাত করেন। কোভিড-১৯ ইউনিয়ন প্রতি ৬০০ টিকা বাস্তবায়নের লক্ষে ২০ হাজার ৬ শত ২০ টাকা বরাদ্দকৃত টাকা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের শাহাদত বার্ষিকীতে সরকারী বরাদ্দকৃত ১০ হাজার টাকা ইউপি চেয়ারম্যান কোন অনুষ্ঠান না করে তা আতœসাত করে ।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের মুঠোফোন ০১৭৩৩৭৩৭৪৯১ নম্বরে একাধিকবার ফোন করলে তার মুঠোফোন নম্বরটি বন্ধ থাকায় তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। ইউপি সচিব আশরাফুল ইসলাম বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সঠিক নয়।

রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরে তাসনিম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি এবং ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে কমিটিকে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।