September 27, 2022
আইন-আদালত

বিধবা অন্তসত্তাকে লাথি মেরে সন্তান নষ্ট করলো যুবক, আদালতে মামলা

ঝিনাইদহ-
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানী ইউনিয়নের নাটাবাড়িয়া গ্রামে এক বিধবাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্ক অতপর অন্তসত্তা হয়ে পড়ার অভিযোগ উঠেছে। সেই বিধবা অন্তসত্তা হওয়ার পর বিয়ের দাবী করলে পেটে লাথি মেরে তার গর্ভের ভ্রন নষ্ট করে দিয়েছে লম্পট ওই যুবক। এ ঘটনায় ঝিনাইদহের একটি আদালতে মামলা হয়েছে। আদালত ঘটনাটি পিবিআইকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। অভিযোগ উঠেছে, হলিধানী ইউনিয়নের নাটাবাড়িয়া গ্রামের রুজদার মন্ডলের ছেলে বিপ্লব গ্রামের এক বিধবা নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এতে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে। ওই নারী বিয়ের দাবীতে বিপ্রবের বাড়িতে গেলে বিপ্লব পেটে লাথি মেরে এক মাস ১৭ দিনের ভ্রন হত্যা করে। এঘটনায় ওই নারী ঝিনাইদহ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন স্পেশাল ট্রাইবুলানে অভিযোগ করেন। বিধবার নারীর অভিযোগ, ১৮ বছর আগে তার স্বামী মারা য়ায়। স্বামীর মৃত্যুর পর এক কন্যাকে নিয়ে পিতার বাড়ি নাটাবাড়িয়া গ্রামে তিনি বসবাস করতেন। মেয়ে বড় মহওয়ায় তাকেও অন্যত্র বিয়ে দিয়েছে। বাড়িতে একা থাকার সুযোগে বিপ্লব বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন বিধবা ওই নারীর সঙ্গে মেলামেশা করতে থাকে। এক পর্যায়ে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে। এদিকে বিপ্লব বিষয়টি আঁচ করতে পেরে সম্প্রতি গোপনে হলিধানী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে বিয়ে করে। খবর শুনে বিধবা ওই নারী বিয়ের দাবীতে বিপ্লবের বাড়িতে গেলে তাকে চড় থাপ্পড়ে পাশাপাশি তলপেটে লাথি মারে। ফলে গত ৭ আগস্ট তার গর্ভপাত ঘটে। স্থানীয় জনপ্রতিধিরা বিচার না করায় ঝিনাইদহের আদালতে তিনি মামলা করেন, যার মামলা নং এনটিসিপি ২৭৬/২২। তবে অভিযুক্ত বিপ্লব জানান, ওই নারীর সঙ্গে প্রেম বা কোনো সম্পর্ক তার ছিল না। সব মিথ্যা এবং ষড়যন্ত্র। এদিকে বাদী পক্ষের আইনজীবী আশরাফুল আলম জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর আদালতে মামলা দাখিল হয়েছে। আদালত তদন্তভার ঝিনাইদহ পিবিআইকে দিয়েছেন।

Jamie Belcher

info@jagobahe24.com

News portal manager

Follow Me:

Comments