February 02, 2023
সারাদেশ

ঘোড়াঘাট উপজেলায় পাথর ভর্তি নিজ ট্রাকের চাকায় পৃষ্ট হয়ে হেলপার ও ড্রাইভারের মৃত্যু ॥

ঘোড়াঘাট, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাককে পাথর বোঝাই অপর আরেকটি ট্রাক পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে পাথর বোঝাই ট্রাকটির চালকের আসনে থাকা চালক, সহকারী (হেলপার) গাড়ি থেকে ছিঁটকে পড়ে এবং নিজ ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা যায়। এ ঘটনায় ট্রাকের কেবিন কেটে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঘোড়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার সময় মারা গেছে ট্রাকটির মূল চালক।
গতকাল সোমবার ২৮ নভেম্বর ভোররাতে ঘোড়াঘাট পৌর এলাকার আজাদমোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ বলছে দুর্ঘটনার সময় গাড়ীটি চালাচ্ছিলেন ট্রাকের হেলপার। এ কারণেই মারাত্বক এই দূর্ঘটনা ঘটেছে।
নিহত দুজন হলেন, সিরাজ শেখের ছেলে ট্রাক চালক শিলন মিয়া (৪০) এবং আব্দুর রাজ্জাক মিয়ার ছেলে চালক সহকারী সাইফুল ইসলাম (২২)। তারা দুজনেই কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালি উপজেলার বাঁশয়ারা গ্রামের বাসিন্দা।
পুলিশ ও ঘটনাস্থলে থাকা লোকজন জানান, বালু বোঝাই একটি ট্রাক দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের আজাদমোড় এলাকায় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিল। গাড়িটির চালক খাবার খাওয়ার জন্য পাশের একটি হোটেলে কথা বলছিল। এমন সময় দিনাজপুর থেকে বগুড়া গামী পাথর বোঝাই অপর আরেকটি ট্রাক দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকটিকে পেছন থেকে জোড়ে ধাক্কা দেয়। এতে পাথর বোঝাই ট্রাকের সামনের অংশ দুমড়ে মুচরে যায় এবং ট্রাকটির নিয়ন্ত্রণে থাকা চালক সহকারী রাস্তায় পড়ে চাকায় পৃষ্ট হয়। এছাড়াও হেলপারের আসনে থাকা ট্রাকটির মূল চালক চাপা খাওয়া কেবিনে আটকা পড়লে ফায়ার সার্ভিস এসে ট্রাকের কেবিন কেটে তাকে উদ্ধার করে।
ঘোড়াঘাট ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ নিরঞ্জন সরকার বলেন, ‘খবর পেয়ে রাত সাড়ে ৩টার সময় ঘটনা স্থলে যাই। ট্রাকটির কেবিনে আটকে থাকা অবস্থায় গাড়িটির মূল চালককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। এর কিছুক্ষণ পরেই চিকিৎসক আমাদেরকে জানান সে মারা গিয়েছে।’
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু হাসান কবির। তিনি বলেন, ‘দুটি মরদেহ আমরা থানায় নিয়ে এসেছি। ট্রাক দুটিও আমাদের হেফাজতে আছে। নিহতের পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

Jamie Belcher

info@jagobahe24.com

News portal manager

Follow Me:

Comments