February 29, 2024
খেলা

রংপুর শেষ চারে ঢাকার বিদায়

রংপুর রাইডার্স এবং ঢাকা ডমিনেটর্সের মধ্যকার ম্যাচের মধ্য দিয়ে গ্রুপ পর্বের আমেজ কিছুটা হলেও নষ্ট হয়ে গেছে। দুই দলের মধ্যকার ম্যাচে ঢাকা জয় পেলে বিপিএলের গ্রুপ পর্ব থেকে শেষ চারে জায়গা করে নেওয়ার জন্য লড়াইয়ের সুযোগ থাকত তিন দলের জন্য।
তবে ঢাকার বিপক্ষে রংপুর জয় পাওয়ায় বিপিএলের প্লে অফে চতুর্থ দল হিসেবে শেষ চারে জায়গা করে নিলো নুরুল হাসান সোহানের দল। অন্যদিকে এই হারের কারণে বিপিএলে থেকে ছিটকে গেছে নাসির হোসেনের ঢাকা।
মিরপুর শের ই বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এদিন দুই দলই জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নেমেছে। রংপুর জয় পেলে দলটির শেষ চার নিশ্চিত হতো। আর ঢাকার জয়ের প্রয়োজন ছিল নিজেদের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখার লক্ষ্যে।
কিন্তু নিজেদের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে পারলো না ঢাকা। মিরপুরে এদিন টসে হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রান তুলতে পারে ঢাকা। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ৩ বল আগে ২ উইকেটের জয় তুলে নেয় রংপুর।
ঢাকার পক্ষে এদিন ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ২৯ রান করতে পারেন আরিফুল হক। এছাড়াও ২৩ রান আসে আবদুল্লাহ আল মামুনের ব্যাট থেকে। এছাড়াও অ্যালেক্স ব্লেক ১৮, আমির হামজা ১৫ এবং শরিফুল হক করেন ১১ রান।
রংপুরের পক্ষে আজমতউল্লাহ ওমরজাই ২টি এবং আরও চার বোলার পেয়েছেন ১টি করে উইকেট।
লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নুরুল হাসান সোহান এবং রনি তালুকদার ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্কের রান স্পর্শ করতে পারেনি। রংপুরের পক্ষে এদিন অধিনায়ক সোহান ছিলেন ম্যাচের বাকি ২১ ব্যাটসম্যানের চেয়ে আলাদা।
যে ম্যাচে একশ স্ট্রাইক রেটে রান তুলতে অন্যরা বিড়ম্বনায় পড়েছিল সেখানে সোহান ১৮৪ স্ট্রাইক রেটে করেন দুই দলের মধ্যকার সর্ব্বোচ্চ ৬১ রান। তাও মাত্র ৩৩ বলে। ৭টি চার ও ৩টি ছয়ে এই রান করেন সোহান।
এছাড়াও রনির ব্যাট থেকে আসে ৩৪ রান। তবে ৩৯ বল খেলে। শেষদিকে দশ নাম্বার মাঠে নেমে হারিস রউফ ৭ রান করে দল জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।
ঢাকার পক্ষে অধিনায়ক নাসির হোসেন মাত্র ২০ রানে নেন ৪ উইকেট। যার ফলে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারীর তালিকায় নাসির উঠে গেলেন সবার উপরে। নাসিরের উইকেটসংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৭-তে। নাসির ছাড়াও ৩ উইকেট শিকার করেছেন শরিফুল ইসলাম।

Jamie Belcher

info@jagobahe24.com

News portal manager

Follow Me:

Comments