February 02, 2023
সারাদেশ

বঙ্গবন্ধু কন্যা এতিমদের বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করছেন-হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি


খায়রুন নাহার বহ্নি, বীরগঞ্জ(দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি মহৎকাজে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, যৌতুক আমাদের সমাজে একটি ব্যাধী। এই ব্যাধী থেকে আমাদের সরে আসতে হবে। বর্তমান যে ৪০ জন ছেলে যৌতুক ছাড়াই বিয়ে করেছে এতিম কন্যাদের সারাদেশে এটি দৃষ্টান্ত। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এতিমদের বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করছেন। তাদের স্বাবলম্বী করতে সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্প নিয়েছেন। ১৯৭৫ সালে প্রতিষ্ঠিত দিনাজপুর শিশু নিকেতন এ পর্যন্ত সাড়ে ৩ শতাধিক এতিম মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে।
২৭ মে শুক্রবার দিনাজপুর গ্রীণ ভিউ কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গনে দিনাজপুর লায়ন্স ক্লাব, শিশু নিকেতন এবং সমাজসেবা অধিদপ্তরের আয়োজনে ৪০ জন নিবাসী মেয়েদের বিবাহোত্তর বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি এসব কথা বলেন।
আলোকসজ্জা , গেট ,ষ্টেজ ,ভিডিও,ব্যান্ডপাটি কোন কিছুই কমতি ছিল না দিনাজপুর শহরের গ্রীনভিউ কমিউনিটি সেন্টারে। কমিউনিটি সেন্টারকে সাজানো হয়েছিল রংবেরং বেলুন দিয়ে। শুক্রবার দুপুরে একই সাথে ৪০ জন পিতামাতাহীন এতিম মেয়েকে বিয়ের অনুষ্ঠানে স্বামীর হাতে তুলে দেওয়া হলো। দিনাজপুর লায়ন্স ক্লাবের অধীনে শিশু নিকেতনের নিবাসী এতিম মেয়েদের যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজন করে লায়ন্স ক্লাব। অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এতিম কন্যাকে তুলে দেওয়া হলো স্বামীদের হাতে। সাজ সজ্জার পাশাপাশি বরযাত্রীসহ আমন্ত্রিত প্রায় ১২ শ অতিথির মধ্যে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা জয়নুল আবেদীন, জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক আবু বকর সিদ্দিক, দিনাজপুর চেম্বারের সভাপতি রেজা হুমায়ুন চৌধুরী শামীম, দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মর্তুজা আল মুঈদ, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরুপ বকসী বাচ্চু, শহর সমাজসেবা অফিসার মাইনুল ইসলাম, করতোয়ার বার্তা সম্পাদক প্রদীপ ভট্টাচার্য, লায়ন্স ক্লাবের প্রেসিডেন্ট লায়ন সৈয়দ মিজানুর রহমান, জোন চেয়ারম্যান (ক্লাবস) লায়ন মোজাফফর আলী মিলন প্রমুখ। সঞ্চালনে ছিলেন লায়ন এ্যাড. আব্দুল মজিদ। এ ছাড়া আরও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
শহরের ফুলবাড়ী বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় লায়ন্স ক্লাবের পরিচালনায় শিশু নিকেতন হোম। এখানে ১০১ জন এতিম শিশু কন্যা লোখাপড়ার পাশাপাশি হাতের কাজ,সেলাই এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষন দিয়ে থাকে। এদের মধ্যে ৪০ জন এতিম কন্যার আজকে দুধধাম ও উৎসব মুখর পরিবেশে বিয়ে দেওয়া হলো। ৪০ জন পাত্র ছিলেন দিনাজপুরসহ বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার। পাত্ররা কেউ ব্যবসায়ী,কেউ গার্মেন্টস চাকুরী করেন,কেউ কৃষিকাজ আবার ওয়ার্কসপের দোকান করেন। দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর উপজেলার বোয়ালদার গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক টেলরস দোকান রয়েছে। বিনা যৌতুকে শিশু নিকেতন হোমের এতিম কন্যা লিজা আক্তারকে বিয়ে করেছেন। রাজ্জাক । বললেন আজকে আমার মত ৪০ জন ভাই যৌতুক না নিয়ে এতিম মেয়েদের বিয়ে করে উদাহারন সৃষ্টি করেছেন। আমরা যেন সুখী হতে পারি সকলের কাছে দোয়া চাই। নতুন জীবন ও ঠিকানা পেয়ে খুশি রাজবাটি এলাকার ধানচাল ব্যবসায়ী তহিনুর ইসলামের নববিবাহিতা এতিম কণ্যা হুমায়ারা উম্মুল। হামজাপুর গ্রামের ছেলে মোঃ রবিউল ইসলামের বাবা রায়হানুল ইসলাম বললেন যৌতুক ছাড়াই আমার ছেলেকে বিয়ে দিয়েছি। আমি চাই সব অভিভাবক এই কাজটি করুক। আয়োজক শিশু নিকেতনের সভাপতি মোজাফর আলী মিলন জানান এই শিশু নিকেতন থেকে প্রতিবছর মেয়েদের বিয়ে দেওয়া হয়। এবার এক সঙ্গে ৪০ জন এতিম মেয়েকে বিয়ে দেওয়া হলো। সাইকেল , সেলাই মেশিনসহ সংসারের প্রয়োজনীয় জিনিষপত্র দেওয়া হয়েছে।

Jamie Belcher

info@jagobahe24.com

News portal manager

Follow Me:

Comments